নারীরা কেনো পুরুষদের চেয়ে বেশি দিন বাঁচেন

প্রকাশিত: ২:২২ অপরাহ্ণ, শুক্র, ২৭ নভেম্বর ২০

অনলাইন ডেস্ক :
প্রতিটি কাজে নারী-পুরুষের অংশগ্রহণ প্রায় সমান। কিন্তু জানেন কি নারীরা পুরুষের তুলনায় বেশিদিন বাঁচেন? তার মানে জীবনকে বেশি সময় উপভোগ করার সুযোগ পান নারীরা। আর এর পেছনে লুকিয়ে রযেছে বেশি কিছু কারণ। জানতে চান? বিশেষজ্ঞরা বলেন,

যুক্তরাষ্ট্রের হার্ট ডিজিজ অ্যাসোসিয়েশনের তথ্য মতে, পুরুষদের হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বেশি, কারণ তারা বেশি ধূমপান করেন, অ্যালকোহল পান করেন এবং চর্বিযুক্ত খাবার বেশি খান।

তাই হৃদরোগে রোগে নারীদের চেয়ে পুরুষদের মৃত্যুর ঝুঁকি দেড় গুণ বেশি। যেখানে ৫৫ বছর বয়সী নারীরা এই ঝুঁকিতে থাকেন অন্যদিকে পুরুষরা তাদের পুরো জীবনই হৃদরোগের ঝুঁকির মধ্যে থাকেন।

রক্তের খারাপ কোলেস্টেরলও বেশি দেখা যায় পুরুষের মধ্যেই। পুরুষের জীবন যাপন কম নিয়ন্ত্রিত থাকায় অনেক সময় খারাপ এলডিএল কোলেস্টেরলের মাত্রা বাড়িয়ে তোলে। যা ধমনী পুরোপুরি আটকে রাখতে পারে, ফলে হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বেড়ে যায়।

ইউনিসেফ বিশেষজ্ঞরা শিশুমৃত্যু নিয়ে একাধিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছেন। লন্ডন স্কুল থেকে এমডি প্রফেসর জয়লোন তার গবেষণায় দেখেছেন, গর্ভের ছেলে শিশুর বিকাশ মেয়ের তুলনায় ধীরে হয়। এ কারণেই ছেলে শিশু প্রিম্যাচিউরড জন্মগ্রহণের ঝুঁকি ১৪ শতাংশ বেশি।

পুরুষের জীবন বেশি ঝুঁকিতে থাকার আরও একটি কারণ খাদ্যাভ্যাস। গ্যালাপ ইনস্টিটিউটের এক সমীক্ষায় দেখা গেছে, পুরুষরা নারীদের তুলনায় দ্রুত ও বেশি খাবার খান। তারা বাইরের খাবার বিশেষ করে ফাস্ট ফুড পছন্দ করেন। এতে বেশি পরিমাণে ফ্যাট ও লবণ গ্রহণ করা হয়, যা হজম হতে বেশি শক্তি অপচয় হয়। এই খাবারগুলো আমাদের হৃৎপিণ্ড এবং রক্তনালীর জন্যও ক্ষতিকর।

এছাড়া পুরুষরা প্রায়ই শারীরিক সমস্যা হলে পাত্তা দিতে চান না। রোগের লক্ষণগুলোও লক্ষ্য করেন না, এজন্য সহজে চিকিৎসকের কাছেও যান না।

শিক্ষাবার্তা/ বিআ

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.