নাটোরে ইউএনও’র গাড়িতে প্রাণ গেল কলেজ শিক্ষক সোহেলের

মোঃ মাহমুদুল হাসান (মুক্তা), নাটোর জেলা প্রতিনিধিঃ

নাটোর জেলার সিংড়া উপজেলায় নলডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুখময় সরকারের সহধর্মিণী প্রভাষক মানসী দত্ত মৌমিতাকে নিয়ে সিংড়া গোল-ই আফরোজ সরকারী কলেজে আসার পথে নলডাঙ্গার ইউএনও’র সরকারি গাড়ি (নাটোর-ঘ ১১-০০৩২) এর চাপায় সোহেল আহমেদ জীবন (৩৩) নামে স্থানীয় এক শিক্ষক ও সংবাদ কর্মি নিহত হয়েছে।

৯ মে সোমবার সকাল ১০ টার দিকে নাটোর-বগুড়া মহাসড়কে সিংড়া এলাকার নিংঙ্গইনে পৌর সীমানা পিলারের কাছে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত সোহেল আহমেদ জীবন বগুড়া থেকে প্রকাশিত দুরন্ত সংবাদের সিংড়া প্রতিনিধি এবং বন্দর উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ের শিক্ষক । পৌর এলাকার বালুয়া-বাসুয়া মহল্লার আব্দুল জলিলের ছেলে।

হাইওয়ে পুলিশ ও স্থানীয় সাংবাদিকরা জানান, বগুড়া থেকে প্রকাশিত দৈনিক দুরন্ত সংবাদ পত্রিকার সিংড়া প্রতিনিধি সোহেল আহমেদ জীবন সোমবার সকাল ১০ টার দিকে সিংড়া শহর থেকে বন্দর উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজে যাচ্ছিলেন।

এসময় সিংড়া উপজেলার নিংঙ্গইনের পৌরসভার সীমানা পিলার এলাকায় তাঁকে পার্শবর্তী নলডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুখময় সরকার এর সরকারি জীপ চাপা দেয়। এতে দুমরে মুচরে যায় শিক্ষক ও সাংবাদিক জীবনের মোটরসাইকেলটি। গুরুতর আহত হন শিক্ষক ও সাংবাদিক জীবন। তাকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানে তার মৃত্যু হয়।

ঝলমলিয়া হাইওয়ে থানার ওসি রেজওয়ানুল ইসলাম জানান, দুর্ঘটনার খবর পেয়ে তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শ করে দুর্ঘটনা কবলিত গাড়িটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে এসেছে। খবর পেয়ে নলডাঙ্গার ইউএনও সুখময় সরকার ও সিংড়ার ইউএনও সামিরুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

স্থানীয় সাংবাদিক ও গোল-ই আফরোজ সরকারী কলেজের কয়েকজন শিক্ষার্থী এবং শিক্ষকরা জানান, নলডাঙ্গার ইউএনও’র স্ত্রী মানসী দত্ত মৌমিতা সিংড়া গোল-ই-আফরোজ সরকারি কলেজের বাংলা বিভাগের প্রভাষক। প্রতিদিনই তিনি স্বামীর সরকারি জিপ ব্যবহার করে কর্মস্থলে আসতেন। মাঝে মাঝে গাড়ী পরিবর্তনও হতো। একজন ইউএনও’র স্ত্রী কোন ক্ষমতাবলে সরকারী গাড়ী ব্যবহার করেন তা তদন্ত করে দেখা হোক বলে দাবিও করেন তারা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই কলেজের এক শিক্ষক বলেন, শনিবার কলেজ খুললেও ঈদের ছুটির পর সোমবার প্রথম কলেজে আসেন ইউএনও’র স্ত্রী মানসী দত্ত মৌমিতা। এসময় তিনি সরকারী গাড়ীতেই কলেজে আসেন।

এবিষয়ে নলডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুখময় সরকার তার সরকারী গাড়ী স্ত্রী ব্যবহারের বিষয়ে অস্বীকার করে বলেন, তার গাড়ী সিংড়া পাম্পে তেল নিতে এসেছিল।

এবিষয়ে জেলা প্রশাসক শামীম আহমেদ বলেন, আমি ছুটিতে বাহিরে রয়েছি। শুনেছি নলডাঙ্গার ইউএনও’র গাড়ী তেল নিতে গিয়ে দুর্ঘটনা ঘটেছে।

শিক্ষক ও সাংবাদিক সোহেল রানা সিংড়া প্রেসক্লাবের সদস্য, পরিবেশ ও প্রকৃতি আন্দোলনের সহ-সভাপতি, কালের কন্ঠ শুভ সংঘের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। এছাড়াও তিনি বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সাথে জড়িত আছেন। তাঁর এই অকাল মৃত্যতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।