নতুন বছরে গুগলে যে ৫ বিষয় সার্চ করলেই জেল

নিউজ ডেস্ক।।

বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন গুগলের ব্যবহারকারী রয়েছে বিশ্বের প্রায় সব দেশেই। যখন যা জানার ইচ্ছা হয় গুগলে সার্চ করেই জেনে নিতে পারছেন। মনের যত জিজ্ঞাসা এখন আর বই পুস্তক ঘাঁটাঘাঁটি করে খুঁজে বের করতে হয় না। কয়েকটি শব্দ টাইপ করে গুগল থেকেই জেনে নেওয়া যায় সবকিছু। রান্নার রেসিপি থেকে শুরু করে মহাকাশের নানান বিষয় জানা যায় গুগলের মাধ্যমেই।

তবে গুগল সার্চ করে বিপদেও পড়তে পারেন। কিছু সংবেদনশীল বিষয় আছে, যেগুলো সার্চ করলে বিপদে পড়তে পারেন। তাই গুগলে সার্চ করার ব্যাপারে সতর্ক হোন। গুগলের নিজস্ব নিয়ম-কানুন আছে। আপনি যদি গুগলে এমন কিছু সার্চ করেন যা গুগলের নিয়মের পরিপন্থী, তাহলে আপনার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হতে পারে। জেল-জরিমানার ঝামেলায় পড়ে যেতে পারেন। নতুন বছরে সতর্ক থাকুন। চলুন জেনে নেওয়া যাক এমন ৫টি বিষয় সম্পর্কে। যেগুলো কখনোই গুগলে খুঁজতে যাবেন না-

বোমা কীভাবে তৈরি হয়? গুগলে কখনোই এই বিষয়ে জানতে চাইবেন না। সার্চ ইঞ্জিনে এই ধরনের বিষয়ের অনুসন্ধান করা ভয়ঙ্কর হতে পারে। বোম কীভাবে তৈরি করে, এই বিষয়টা আপনি যদিগুগলে সার্চ করেন, তাহলে আপনি সরকারি নিরাপত্তা কর্মী এবং সার্চ ইঞ্জিনের কর্মীদের টার্গেট হয়ে যেতে পারেন। এরপর তাদের নজরদারিতে থাকবেন সারাক্ষণ। আপনার সব কার্যকলাপ রেকর্ড করা হবে।

অপরাধমূলক কার্যকলাপ সম্পর্কিত কোনো কিছু: গুগলে এমন কোনো বিষয়, যা আপনার নজরে অপরাধমূলক, সেই সংক্রান্ত কোনো কিছু সার্চ করবেন না। যেমন ধরুন, কাউকে ভয় দেখাতে বা কাউকে আক্রমণ করার জন্য আপনি গুগলে গিয়ে বন্দুকের দাম দেখছেন, বা বন্দুকের মডেল দেখছেন, সার্চ করলেই জেলযাত্রা হতে পারে আপনার। এমন কিছু অপরাধমূলক তথ্যের অনুসন্ধান সবসময়ই বিপজ্জনক হতে পারে। পাশাপাশি মাদকদ্রব্য, বেআইনি বা নিষিদ্ধ পণ্যের ব্যাপারে অনুসন্ধানও আপনার জন্য যথেষ্ট ঝুঁকির হতে পারে।

চাইল্ড পর্ন সংক্রান্ত:অনেকেই অ্যাডাল্ড কন্টেন্ট বা পর্নোগ্রাফি সার্চ করেন গুগলে। এটি খুবই বিপজ্জনক। বিশেষ করে চাইল্ড পর্নোগ্রাফি সার্চ করা বা এই সম্পর্কিত কিছু শেয়ার করা অপরাধ। বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে শিশু পর্নোগ্রাফিক সংক্রান্ত যে কোনো কন্টেন্ট বা বিষয়ের অনুসন্ধান করাকে এক্কেবারেই ভাল চোখে দেখে না গুগল।আপনি যদি এটি সার্চ করেন তাহলে গুগলে নিয়ম ও আইন লঙ্ঘনের জন্য আপনার বিরুদ্ধে মামলা করতে পারে।
গর্ভপাত সংক্রান্ত কোনো শব্দ: গর্ভপাত সংক্রান্ত কিছু গুগলে সার্চ করলেই বিপদে পড়তে পারেন। এটি অনেক দেশেই আইনতভাবে নিষিদ্ধ। এমনকি চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া গর্ভপাত করানো খুবই বিপজ্জনক।

অতএব গুগলে গর্ভপাতের পদ্ধতি অনুসন্ধান করাও অপরাধ, যার জন্য আপনার বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নিতে পারে গুগল।

আক্রান্তের পরিচয় ফাঁস করা:যৌন নিপীড়নের শিকার এমন ব্যক্তির পরিচয় বা পরিস্থিতি সম্পর্কিত যে কোনো তথ্য গোপন রাখতে হবে। সুপ্রিম কোর্ট রায় দিয়েছিল, প্রিন্ট বা ডিজিটাল মিডিয়াতে এই ধরনের আক্রান্তের পরিচয় ফাঁস করলে ভয়ঙ্কর শাস্তি হতে পারে। এরকম বিষয় নিয়ে গুগল সার্চ বা গুগলে আক্রান্তের পরিচয় ফাঁস করে দিলে জেলে পর্যন্ত যেতে হতে পারে। সূত্র: পিপা নিউজ