তীব্র গরমের পর স্বস্তির বৃষ্টি, অব্যাহত থাকবে তিন-চার দিন

নিউজ ডেস্ক।।

তীব্র গরমের পর স্বস্তির বৃষ্টি নেমেছে দেশ জুড়ে। যা আগামী তিন থেকে চার দিন অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর।

রোববার (২ অক্টোবর) ভোর ৫টার দিকে আকাশজুড়ে মেঘের গর্জন ও ঝড়ো হাওয়ার পর দেশের বিভিন্ন এলাকায় বৃষ্টি শুরু হয়। ফলে ভ্যাপসা গরম কমে যাওয়ায় কিছুটা হলেও স্বস্তি এসেছে জনজীবনে। যদিও টানা বৃষ্টিতে কিছুটা ভোগান্তিতে পড়েছেন ঘর থেকে বের হওয়া মানুষ। বৃষ্টির কারণে অনেকেই সময় মতো অফিসে পৌঁছাতে পারেননি।

মূলত মৌসুমি বায়ুর প্রভাব এখনো দেশের ওপর সক্রিয় থাকায় মেঘের সৃষ্টি হচ্ছে এবং তা থেকে বৃষ্টি ঝরাচ্ছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হচ্ছে, বৃষ্টির এই প্রবণতা আরও বাড়তে পারে।

আবহাওয়া অফিস সূত্রে জানা যায়, গত ৪০ বছরের মধ্যে জুলাই মাসে এ বছরই সবচেয়ে কম বৃষ্টি হয়েছে। সেটিও প্রায় ৫৭ শতাংশ কম। আগস্ট মাসেও এই ধারা অব্যাহত ছিলো। তবে সেপ্টেম্বরে বৃষ্টিপাতের প্রবণতা দেখা গেছে বেশি। শরতের শেষ সময়ে এভাবে হঠাৎ বৃষ্টি আর রাতের শেষভাগে হিম হিম ঠান্ডা যেন শীতের আগমনী বার্তা দিচ্ছে।

আজ ভোর ৫টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরসমূহের জন্য আবহাওয়ার পূর্বাভাস দেয়া হয়েছে। পূর্বাভাসে ১৫টি অঞ্চলের নদীবন্দরকে সতর্ক সংকেত দেয়া হয়েছে।

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে জানা যায়, পাবনা, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, ঢাকা, ফরিদপুর, কুষ্টিয়া, যশোর, খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী কুমিল্লা, নোয়াখালী, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার এবং সিলেট অঞ্চলসমূহের উপর দিয়ে দক্ষিণ/দক্ষিণ-পূর্বদিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে বৃষ্টি ও বজ্র-বৃষ্টিসহ অস্থায়ীভাবে দমকা/ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরসমূহকে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

এদিকে শনিবার সকাল ৯টা থেকে রোববার সকাল ৯টা পর্যন্ত দেশের সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে শ্রীমঙ্গলে ৫০ মিলিমিটার। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকায় বৃষ্টিপাত হয়েছে মাত্র ২ মিলিমিটার।