ডাক্তার-ইঞ্জিনিয়ার বানাচ্ছি মানুষ বানাচ্ছি কতটুকু-আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক

নিজস্ব প্রতিবেদক।।

শিক্ষাবিদ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেছেন, শিক্ষকের ওপর হামলা ও লাঞ্ছনার ঘটনা সমাজের সবাইকে লজ্জিত করেছে। এমন ঘটনার মূল কারণ হচ্ছে, শিক্ষার্থীদের এখন মানবিকতার শিক্ষা দেওয়া হচ্ছে না। আমরা শুধু জিপিএ-৫ পেতেই ব্যস্ত হয়ে পড়েছি। মানুষের মানবিকতার শিক্ষাটা বড় দরকার। আমরা শিক্ষার্থীদের ডাক্তার বানাচ্ছি, ইঞ্জিনিয়ার বানাচ্ছি। কিন্তু মানুষ বানাচ্ছি কতটুকু, সেটা ভেবে দেখছি না।

গতকাল বাংলাদেশ প্রতিদিনের সঙ্গে আলাপে এসব কথা বলেন তিনি। এ শিক্ষাবিদ আরও বলেন, ছাত্রছাত্রীদের মানবিকতার শিক্ষা, সততার শিক্ষা, মূল্যবোধের শিক্ষা, মানুষকে ভালোবাসার শিক্ষা পাঠ্যক্রমে গুরুত্ব দিয়ে পড়াচ্ছি না। এটাই এমন অবক্ষয়ের বড় কারণ। এ ছাড়া নানা কারণ থাকতে পারে।

অধ্যাপক আরেফিন সিদ্দিক আরও বলেন, মানুষ হওয়ার শিক্ষা আমরা শিক্ষাব্যবস্থা থেকে দূরে সরিয়ে দিয়েছি। তাই এসব অমানবিক ঘটনা বৃদ্ধি পেয়েছে। নড়াইলে শিক্ষক লাঞ্ছনার ঘটনা ঘটেছে সরকারের প্রশাসনের কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে। সবার উপস্থিতিতে একজন অধ্যক্ষকে জুতার মালা পরানো সম্ভব কীভাবে? অধ্যক্ষ কোনো অপরাধ করে থাকলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার অনেক পথ রয়েছে। মানুষকে মর্যাদা না দেওয়ার একটি অপসংস্কৃতি গড়ে উঠেছে আমাদের মধ্যে। এ অপসংস্কৃতি থেকে বের হতে হবে সবাইকে। তা না হলে আমাদের আরও চরম মূল্য দিতে হবে। সরকারের নীতিনির্ধারকরা এ ব্যাপারে ভেবে দেখবেন আশা করি।