টুইটারের ৭৫ শতাংশ কর্মী ছাঁটাই করতে চান এলন মাস্ক

নিউজ ডেস্ক।।

বিশ্বের শীর্ষ ধনী এবং যুক্তরাষ্ট্রের গাড়িনির্মাতা প্রতিষ্ঠান টেসলার প্রধান নির্বাহী এলন মাস্ক টুইটার কিনছেন। আর তারপর থেকেই শুরু হয়েছে মাইক্রোব্লগিং সংস্থাকে নিয়ে নানা জলঘোলা, টানাপোড়েন। গত এপ্রিলে এলন মাস্ক হঠাৎ জানিয়েছিলেন তিনি আর টুইটার কিনতে আগ্রহী নন। মাঝপথে চুক্তি ভেঙে বেরিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করতেই টেসলা কর্তাকে আদালতে টেনে নিয়ে যায় টুইটার কতৃপক্ষ।সেই মামলা এখনও চলছে, এরইমাঝে ফের একবার টুইটারের মালিকানা নিয়ে আগ্রহ দেখিয়েছেন এলন মাস্ক। কিন্তু তার এই আগ্রহেই অশনী সঙ্কেত দেখছেন টুইটারের কর্মীরা। সূত্রের খবর, টুইটারের ৭৫ শতাংশ কর্মী ছাঁটাই করতে চান এলন মাস্ক। সংস্থার সম্ভাব্য় বিনিয়োগকারীদের এমনটাই জানিয়েছেন এলন মাস্ক।

ওয়াশিংটন পোস্টের প্রতিবেদন অনুযায়ী, মাইক্রো ব্লগিং সংস্থায় বর্তমানে ৭ হাজার ৫০০ কর্মী রয়েছে। তাদের মধ্যে ৭৫ শতাংশ কর্মীকেই ছাঁটাই করতে চান এলন মাস্ক। আগামী কয়েক মাসের মধ্যেই এই কর্মী ছাঁটাই করা হবে বলে জানা গেছে। সেই সময় সংস্থার মালিকানা এলন মাস্কের হাতেই থাকুক বা অন্য কারোর, এই ছাঁটাই করা হবেই।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, টুইটার সংস্থার ম্যানেজমেন্ট বিভাগের পরিকল্পনা অনুযায়ী আগামী বছরের শেষ ভাগের মধ্যে ৮০০ মিলিয়ন ডলার সাশ্রয় করা। সেই লক্ষ্যেই কর্মী ছাঁটাইয়ের চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে। এই বিপুল সংখ্যক অর্থ সঞ্চয়ের জন্য সংস্থার অর্ধেকেরও বেশি সংখ্যক কর্মী ছাঁটাই করা হবে বলেই ধারণা করা হচ্ছে।

এদিকে, টুইটার সংস্থার মানব সম্পদ বিভাগ জানিয়েছে, বর্তমানে কর্মী ছাঁটাইয়ের কোনও পরিকল্পনা নেই। যদিও সংস্থাটির অভ্যন্তরের নথি-তথ্য অন্য কথাই বলছে।

উল্লেখ্য, সম্প্রতিই এলন মাস্ক টুইটার সংস্থা কেনার পরিকল্পনা থেকে পিছু হটে আসেন। টুইটার সংস্থার কাছে তিনি যে বট ও স্প্যাম অ্যাকাউন্টের তথ্য জানতে চেয়েছিলেন, তা জানানো হয়নি, এই অভিযোগই করেছিলেন তিনি। এরপরই এলন মাস্কের বিরুদ্ধে আদালতে যায় টুইটার সংস্থা। তবে চলতি মাসের শুরুতেই এলন মাস্ক ফের মতবদল করে জানান, তিনি পুরনো শর্তেই টুইটার অধিগ্রহণ করবেন।

সূত্র: এএফপি