জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কারিকুলামে পরিবর্তন আনছে

প্রকাশিত: ৯:৩০ অপরাহ্ণ, শুক্র, ২৩ জুলাই ২১

সজল আহমেদ।।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে শিক্ষার্থীদের গড়ে তুলতে কারিকুলামে পরিবর্তন আনছে । উদ্দেশ্য কর্মক্ষেত্রে যেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাস করা শিক্ষার্থীরা নিজেদের জায়গা করে নিতে পারেন। এজন্য কারিকুলামে কর্মমুখী বিভিন্ন কোর্স অর্ন্তভুক্ত করার উদ্যোগও নেওয়া হচ্ছে।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের যেসব শিক্ষার্থীর অনার্স শেষ হবে, তাদের এবং মাস্টার্সের শিক্ষার্থীদের কোর্সের পাশাপাশি বিভিন্ন যুগোপযোগী ও কর্মমুখী কোর্স করানো হবে। এ উদ্যোগ বাস্তবায়নে গঠিত কমিটি ইতোমধ্যে দুটি মিটিংও করেছে। মিটিংয়ের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিনদের কারিকুলামে কর্মমুখী কোর্স অন্তর্ভুক্ত করার সম্ভাব্যতা যাচাই করার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

শুক্রবার (২৩ জুলাই) এ বিষয়ে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. মশিউর রহমান বলেন, ‘কারিকুলামে পরিবর্তন আনা এবং কর্মমুখী শিক্ষা অন্তর্ভুক্ত করার বিষয়ে আমাদের চিন্তাভাবনা রয়েছে। সে ক্ষেত্রে আমরা কিছু শর্ট কোর্স এবং ডিপ্লোমা কোর্স অন্তর্ভুক্ত করার কথা ভাবছি। উদাহরণ হিসেবে বলা যায় আইসিটি, ভাষা, ফিশারিজ, অ্যাগ্রো-প্রসেসিং ইত্যাদি কোর্স। তবে এখনও কোর্সগুলো নির্দিষ্ট করা হয়নি।’

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে কারিকুলাম তৈরির সম্ভাব্যতা যাচাইয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে ১৫ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির আহ্বায়ক হলেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. মশিউর রহমান। সদস্যসচিব বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মোল্লা মাহফুজ আল হোসেন।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.