নোয়াখালীতে প্রতারণার মাধ্যমে  গ্রাহকের টাকা আত্মসাৎ করার মামলায় এক পোস্ট মাস্টারকে নয় বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাকে ২৫ লাখ ৬০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

দণ্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তির নাম শ্রীবাস চন্দ্র দে। তিনি লক্ষীপুর জেলার চন্দ্রগঞ্জ থানাধীন দত্তপাড়া উপডাক ঘরের বরখাস্ত হওয়া পোস্ট মাস্টার এবং লক্ষীপুর সদর উপজেলার রাধাপুর গ্রামের নারায়ণ চন্দ্র দে’র ছেলে।

সোমবার দুপুর ১টার দিকে নোয়াখালী স্পেশাল জজ আদালতের বিচারক এ.এন এম মোশেদ খান এ রায় দেন। দুদকের পিপি এ্যাডভোকেট আবুল কাশেম এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

দুর্নীতি দমন কমিশন সমন্বিত জেলা কার্যালয় ,নোয়াখালী এর সহকারী পরিচালক সুবেল আহম্মেদ জানান, আসামি শ্রীবাস চন্দ্র দত্তপাড়া উপডাকঘরে দায়িত্বে থাকাকালীন ৬জন আমানতকারীর কাছ থেকে ৩৮ লাখ ২৭ হাজার টাকা নিয়ে তাদের কে জমা রসিদ দেন ।কিন্তু  সরকারি কোষাগারে জমা না দিয়ে  প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে ওই টাকা তিনি আত্মসাৎ করেন। এই ঘটনায় ২০১৯সালের ১৩ মে লক্ষীপুরের চন্দ্রগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের হয়। এর কয়েকদিন পর মামলাটি তদন্তের জন্য দুদক নোয়াখালী কার্যালয়ে পাঠানো হয়।মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সহকারী পরিচালক সুবেল আহমেদ মামলাটি তদন্ত করে ২০২১সালে ৩ফেব্রুয়ারি আদালতে চার্জশিট দেন। দীর্ঘ শুনানি শেষে আদালত সোমবার দুপুরে এই রায় ঘোষণা করেন।

জেলা দুদকের পিপি অ্যাডভোকেট আবুল কাশেম জানান, আসামিকে নোয়াখালী জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।