গুচ্ছের ভর্তির আবেদন শুরু নির্দেশিকা না থাকায় বিভ্রান্তি

নিউজ ডেস্ক।।

আজ সোমবার থেকে শুরু হচ্ছে গুচ্ছভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির আবেদন প্রক্রিয়া। কিন্তু ভর্তি সংক্রান্ত কোনো নির্দেশিকা বা শর্ত এখনো প্রকাশ করেনি কোনো বিশ্ববিদ্যালয়। ফলে উত্তীর্ণ হলেও এখন ভর্তি হতে গিয়ে নানা বিভ্রান্তিতে পড়তে হচ্ছে শিক্ষার্থীদের। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ইতঃপূর্বে ভর্তির বিষয়ে কেন্দ্রীয়ভাবে কিছু শর্ত প্রকাশ করা হলেও বলা হয়েছিল বিশ্ববিদ্যালয়ভিত্তিক আলাদা কিছু নীতিমালা থাকবে। সেখানে জিপিএ, বিষয়ভিত্তিক যোগ্যতা, ভর্তির প্রক্রিয়া প্রভৃতি উল্লেখ থাকবে। জানিয়ে দেয়া হবে আসন সংখ্যাও। বিদেশী শিক্ষার্থীদের কিভাবে ভর্তি করা হবে সে বিষয়েও জানানো হবে। কিন্তু আজ থেকে ভর্তি কার্যক্রম শুরু হলেও এখনো পর্যন্ত কোনো নির্দেশিকা বা শর্ত সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়নি।

গুচ্ছভুক্ত ২২ বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের ভর্তি আবেদন প্রক্রিয়া আজ থেকে শুরু হয়ে চলবে ২৭ অক্টোবর রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত। তবে শর্ত সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি এখনো বেশির ভাগ বিশ্ববিদ্যালয় প্রকাশ করেনি। ফলে ভর্তিচ্ছুরা বিভ্রান্তিতে পড়ছেন বলে অভিযোগ করেছেন অনেক শিক্ষার্থী ও অভিভাবক। এবার প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়ে আবেদন করতে শিক্ষার্থীদের ৫০০ টাকা করে খরচ হবে। এই ফি দিয়েই সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের তিনটি ইউনিটেই আবেদন করতে পারবেন ভর্তিচ্ছুরা। যে বিষয়গুলোর ব্যবহারিক আছে, সেগুলোর জন্য আবেদন করতে বাড়তি ৩০০ টাকা গুনতে হবে।
তবে গুচ্ছভিত্তিক ২২টির মধ্যে হাতেগোনো কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয় এ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। এর মধ্যে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (নোবিপ্রবি), মওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (মাভাবিপ্রবি), যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (যবিপ্রবি), বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় (ববি) ও খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় (খুবি) রয়েছে। এর বাইরে আজকের মধ্যে দুই-একটি বিশ্ববিদ্যালয় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করতে পারে বলে জানা গেছে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ভর্তির প্রক্রিয়া শুরু হলেও বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ না করাটা শিক্ষার্থীদের জন্য উদ্বেগের। কারণ তারা এসব বিজ্ঞপ্তি দেখেই নিজেদের পছন্দ ঠিক করে আবেদন করবেন। আবেদনের সময়ও কম হওয়ায় আরো আগেই সব বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞপ্তি জারি করার দরকার ছিল। গতকাল রাত পর্যন্ত কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে গিয়ে এ সংক্রান্ত কোনো তথ্যও পাওয়া যায়নি।

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালাম বলেন, মূল বিজ্ঞপ্তিটা কেন্দ্রীয়ভাবে প্রকাশ করার কথা। আর বিশ্ববিদ্যালয়ভিত্তিক শর্তগুলো ওয়েবসাইটে থাকবে। সে অনুযায়ী ভর্তিচ্ছুরা আবেদন করবে। এ বিষয়ে কথা বলতে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. ফরিদ উদ্দিন আহমদের মোবাইল ফোনে কল দিলেও তিনি রিসিভ করেননি। আরেক বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি মিটিংয়ে আছেন জানিয়ে কথা বলেননি।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. ইমদাদুল হক বলেন, বিষয়টি নিয়ে প্রাথমিক সিদ্ধান্ত হয়েছে। তবে সাধারণ শর্তগুলোর মধ্যে গত শিক্ষাবর্ষের মতো এবারো এসএসসি ও এইচএসসিতে প্রাপ্ত জিপিএর ওপর ২০ নম্বর রাখার বিষয়ে প্রাথমিকভাবে ভেবেছি। ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে ভর্তির ক্ষেত্রে জিপিএর ওপর ২০ নম্বর রাখা হতে পারে।

জানা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়মানুসারে আবেদন ফি নির্ধারিত সময়ের মধ্যে অবশ্যই পরিশোধ করতে হবে। ব্যবহারিক পরীক্ষা স্ব-স্ব বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হবে। শিক্ষার্থীদের একটি নির্দিষ্ট ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। একটি ওয়েবসাইট থেকেই সব বিশ্ববিদ্যালয়ে আবেদন করা যাবে। আবেদন প্রক্রিয়া সহজ করতে প্রাপ্ত নম্বর অনুযায়ী সম্ভাব্য বিশ্ববিদ্যালয় এবং সাবজেক্ট সাজেস্ট করা হবে। এটি সফটওয়্যারের মাধ্যমে স্বয়ংক্রিয়ভাবে সম্পন্ন হবে।