গুচ্ছভুক্ত ২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার চূড়ান্ত আবেদন ১ সেপ্টেম্বর শুরু

প্রকাশিত: ১১:৩৪ অপরাহ্ণ, রবি, ২২ আগস্ট ২১

নিউজ ডেস্কঃ

গুচ্ছভিত্তিক ২০টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার প্রাথমিক আবেদন সম্পন্ন হয়েছে ২৫ জুন। এবার চূড়ান্ত আবেদনের সময়সীমা ও ফি নির্ধারণ করা হয়েছে। শিক্ষার্থীদের প্রাথমিক আবেদন যাচাই-বাছাই শেষে যেসব শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ হয়েছেন তাদের তালিকা প্রস্তুত করা হয়েছে। এ মাসের মধ্যে উত্তীর্ণদের মোবাইল ফোনে বার্তার মাধ্যমে ফলাফল জানিয়ে দেওয়া হবে। ৩ লাখ ৬০ হাজার ৪০৬ জন শিক্ষার্থী প্রাথমিকভাবে ভর্তি পরিক্ষার জন্য আবেদন করেছেন।

পরবর্তী ধাপ অর্থাৎ চূড়ান্ত আবেদন আগামী ১ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হয়ে ৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলবে।

শনিবার দিবাগত রাত আটটায় শুরু হওয়া ২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের উপস্থিতিতে গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার কোর কমিটির বৈঠক শেষে এসব সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় বলে জানান গুচ্ছভুক্ত ২০ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষার টেকনিক্যাল কমিটির আহ্বায়ক ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য মোনাজ আহমেদ নূর।

ভর্তি পরীক্ষা কবে অনুষ্ঠিত হতে পারে- এ প্রশ্নের উত্তরে উপাচার্য বলেন, পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে শিগগিরই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। প্রাথমিকভাবে আমরা পরিকল্পনা করেছি অক্টোবরের মধ্যেই ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে নেওয়ার। সশরীরে এ পরীক্ষা নিতে চান বলেও জানান তিনি।

এর আগে উপাচার্যদের সভায় গৃহীত সিদ্ধান্ত অনুসারে, ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্ন করা হবে উচ্চমাধ্যমিকের পাঠ্যসূচির ওপরে। বিজ্ঞান, মানবিক ও বাণিজ্য মোট তিনটি বিভাগে পরীক্ষা হবে। শিক্ষার্থীদের পছন্দের ক্রমানুসারে কমপক্ষে পাঁচটি পরীক্ষাকেন্দ্র সিলেক্ট করতে হবে। আবেদনকারী বর্তমানে কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত থাকলে সেই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের নাম ও অধ্যয়নের বিষয় সংক্রান্ত তথ্য প্রদান করতে হবে। আবেদনকারীর শিক্ষার্থীর ছবি বর্গাকার, হালকা এক রঙের ব্যাকগ্রাউন্ড ও ছবির সাইজ ১০০ কিলোবাইটের নির্ধারিত ফরম্যাটে থাকতে হবে।

উল্লেখ্য, গুচ্ছভিত্তিক পরীক্ষার মাধ্যমে একজন ভর্তি ইচ্ছুক শিক্ষার্থী নিজ নিজ বিভাগে একটি পরীক্ষা দিয়েই যোগ্যতা ও আসন অনুযায়ী যে কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ পাবেন। এর আগে ১৯ জুন বিজ্ঞান, ২৬ জুন মানবিক ও ৩ জুলাই বাণিজ্য বিভাগে ভর্তি পরীক্ষার তারিখ নির্ধারণ করা হলেও করোনার প্রকোপে তা স্থগিত করা হয়।

গুচ্ছভুক্ত ২০ বিশ্ববিদ্যালয়গুলো হলো: জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়, হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়, রাঙামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটি, শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয় এবং বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.