গণমাধ্যমকে বলা হয় রাষ্ট্রের চতুর্থ স্তম্ভ: ভিসি ড. সৌমিত্র

এস এম মোজতাহীদ প্লাবন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদকঃ  গণমাধ্যমকে বলা হয় রাষ্ট্রের চতুর্থ স্তম্ভ। আর এই চতুর্থ স্তম্ভের জন্য নৈতিকতা খুব জরুরি। নৈতিকতার পাঠ সর্বত্রই নেওয়া উচিৎ। উন্নয়ন হচ্ছে অবকাঠামোগত এবং একই সঙ্গে আমরা অন্যান্য ক্ষেত্রেও উন্নয়নের ছোঁয়া দেখতে পাই। কিন্তু এখন বড় সঙ্কট হচ্ছে নৈতিকতার। একই সঙ্গে সংবাদপত্র বা গণমাধ্যমের জন্য নৈতিকতা প্রতিষ্ঠা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ রাষ্ট্রের চতুর্থ স্তম্ভের মধ্যে যদি নৈতিকতা না থাকে তাহলে রাষ্ট্র নীতিগত দিক থেকে দুর্বল হয়ে পড়বে। একারণে সাংবাদিকতার সাথে সাথে নৈতিকতা শেখাটাও অনেক জরুরি বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. সৌমিত্র শেখর।

সোমবার বিকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের কনফারেন্স কক্ষে আয়োজিত ‘গণমাধ্যম এবং সাংবাদিকতায় নীতি ও নৈতিকতা’ বিষয়ক তিন দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধনী অধিবেশনে উদ্বোধক হিসেবে বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিল্ম এন্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগ এই কর্মশালাটি আয়োজন করে। জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে এই প্রশিক্ষণ কর্মশালাটি অনুষ্ঠিত হয়।

উপাচার্য আরও বলেন, নৈতিকতার শিক্ষা আমাদের প্রাচীন সমাজে ছিল। আমরা যদি আমাদের প্রাচীন সমাজের সেই নৈতিকতা ও মূল্যবোধ আমাদের জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে কাজে লাগাতে পারি তাহলে আমাদের সমাজ আরও বিকশিত হবে। সেদিক থেকে শিক্ষকতা, ব্যবসা বা সমাজের প্রতিটি ক্ষেত্রেই নৈতিকতা প্রতিষ্ঠা জরুরি।

ড. সৌসিত্র শেখর কর্মশালা বিষয়ে বলেন, আজকের যে কর্মশালা তা খুবই প্রাসঙ্গিক ও সময়োপযোগী। এছাড়া বিদেশ থেকে আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন সাংবাদিক জনাব খালিদ মুহিউদ্দীন যুক্ত হয়ে আমাদের শিক্ষার্থীদের জন্য শিক্ষণের ক্ষেত্রে তার অভিজ্ঞতা ও শিক্ষাকে বিস্তৃত করার জন্য যোগ দিয়েছেন, তার জন্য তাকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই। আর শিক্ষার্থীরাও যেন তাদের অর্জিত এই জ্ঞানকে তাদের জীবনে ধারণ করে এবং সেই পথে তাদের জীবন পরিচালনা করে।

কর্মশালার প্রশিক্ষক হিসেবে প্রশিক্ষণ প্রদান করেন বিশিষ্ট সাংবাদিক ও গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব জার্মান ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম ডয়চে ভেলের বাংলা বিভাগের প্রধান জনাব খালেদ মুহিউদ্দীন। কর্মশালার শুরুতে জনাব খালেদ মুহিউদ্দীন নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের ভূয়শি প্রশংসা করেন এবং দেশে আসলেই নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোরম পরিবেশ স্বশরীরে এসে দেখার ইচ্ছা ব্যক্ত করেন। এসময় ফিল্ম এন্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ড. মো. তুহিনুর রহমান (তুহিন অবন্ত), বিভাগের অন্যান্য শিক্ষকবৃন্দসহ শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

শিক্ষাবার্তা ডট কম/এএইচএম/৩০/১০/২০২৩

দেশ বিদেশের শিক্ষা, পড়ালেখা, ক্যারিয়ার সম্পর্কিত সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম, ছবি, ভিডিও প্রতিবেদন সবার আগে দেখতে চোখ রাখুন শিক্ষাবার্তায়