গণঅনশন অব্যাহত রেখেছে নিয়োগ বঞ্চিত বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধনধারীরা

অনলাইন ডেস্ক

রাজধানীর শাহবাগে গণগ্রন্থাগার সংলগ্ন রাস্তার পাশে ৩৪ দিনের মত অনশন পালন করেন নিয়োগ প্রত্যাশীরা। শুক্রবার ‘প্যানেল প্রত্যাশী নিবন্ধিত শিক্ষক সংগঠন’-এর ব্যানারে এই কর্মসূচিতে বসেন দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আসা ভুক্তভোগীরা।

বক্তরা বলেন, দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত অনশন চালানোর ঘোষণা দেন শিক্ষক প্রত্যাশী নেতারা। সে অনুযায়ী শুক্রবার কর্মসূচির ৩৪ দিন পার করেন তারা।

আন্দোলনকারীদের তিন দফা দাবির মধ্যে রয়েছে-এক আবেদনে সকল নিবন্ধনধারী চাকরি প্রত্যাশীদের প্যানেল ভিত্তিক নিয়োগ দিতে হবে; সকল নিবন্ধনধারীদের স্ব স্ব নীতিমালায় নিয়োগ না হওয়া পর্যন্ত নিবন্ধন পরীক্ষা বন্ধ রাখতে হবে এবং ইনডেক্সধারীদের গণবিজ্ঞপ্তির অন্তর্ভুক্ত না করে আলাদা বদলির ব্যবস্থা করতে হবে।

অনশন চলাকালে প্যানেল প্রত্যাশী নিবন্ধিত শিক্ষক সংগঠনের সভাপতি মো. আমির হোসেন বলেন, বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষের (এনটিআরসিএ) অধীনে ২০০৫ সাল থেকে এ পর্যন্ত ১৬ টি শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েও আমাদের অনেকে আজও চাকরির মুখ দেখেননি। এ নিবন্ধন পরীক্ষায় আমরা যারা পাস করে সনদ পেয়েছি, তারা সবাই চাকরি পাওয়ার যোগ্য। কিন্তু দুঃখের বিষয় ১৬টি নিবন্ধন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ সনদধারীদের জন্য মাত্র তিনটি গণবিজ্ঞপ্তি দিতে সক্ষম হয়েছে এনটিআরসিএ।

তিনি বলেন, চাকরির আশায় একেক প্রার্থী গড়ে ১০০ আবেদন করেছেন। কিন্তু অনেকে নিয়োগ পাননি। এখনো বহু শিক্ষক পদ শূন্য আছে। সরকারের ভাবমূর্তি রক্ষার প্যানেল করে শিক্ষক নিয়োগের বিকল্প নেই। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ৮৫ হাজার পদ এখনো খালি আছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।