কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ এর অধ্যক্ষ হলেন ডাঃ দেলদার হোসেন

প্রকাশিত: ৪:১২ অপরাহ্ণ, মঙ্গল, ২০ এপ্রিল ২১

রফিকুল আলম বকুল, মেহেরপুর প্রতিনিধি ।।
মেহেরপুর জেলার গাংনী উপজেলার রাইপুর গ্রামের মরহুম আকমল হোসেন মাস্টারের বড় ছেলে ডাঃ দেলদার হোসেন কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ হিসেবে নিযুক্ত হয়েছেন । এর আগে ডাঃ দেলদার হোসেন কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজের প্যাথোলজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত ছিলেন । অত্যন্ত মেধাবী ডাঃ দেলদার হোসেন গ্রামের প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপ্ত করে গাংনী পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ভর্তি হন ।

মেধাবী দেলদার ১৯৮২ সালে গাংনী পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে যশোর শিক্ষা বোর্ড এর অধীনে মেধা তালিকায় ১১ তম ষ্ট্যান্ড সহ এস এস সি পাশ করেন । এরপর ভর্তি হন কুষ্টিয়া সরকারী কলেজে । সেখান থেকে ১৯৮৪ সালে যশোর শিক্ষা বোর্ডের অধীনে মেধা তালিকায় ৬ষ্ঠ ষ্ট্যান্ডসহ এইচ এস‌সি পাশ করে ভর্তি হন ঢাকা মেডিকেল কলেজে । সেখানে মেধার স্বাক্ষর রেখে এমবিবিএস সমাপ্ত করেন ।

অত্যন্ত মেধাবী ও‌ বিনয়ী ডাঃ দেলদার হোসেন চারভাই ও এক বোনের মধ্যে সবার বড় । তার বাবা ছিলেন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক । মেজোভাই আমিরুল ইসলাম বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর কর্নেল হিসেবে কর্মরত আছেন, ৩য় হামিদুল ইসলাম একটি ডিগ্রি কলেজে রসায়ন বিভাগের শিক্ষক থাকা অবস্থায় কয়েক বছর আগে ষ্ট্রোক করে মুত্যুবরন করেন । সবচেয়ে ছোট জামিরুল ইসলাম বাংলাদেশ রপ্তানি উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নীলফামারির উত্তরা ইপিজেডের উপ-ব্যবস্থাপক হিসেবে কর্মরত আছেন, ছোট বোন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা ।

সব ভাইবোন অত্যন্ত মেধাবী । তাঁর বাবা ছিলেন এলাকার অত্যন্ত সৎ, পরহেজগার ও ভাল‌ মানুষ ও ভাল শিক্ষক হিসেবে পরিচিত ছিলেন । একজন দক্ষ শিক্ষক ও অভিভাবক ছিলেন তার বাবা । ডাঃ দেলদার হোসেন পারিবারিক জীবনে এক. মেয়ে ও এক ছেলের জনক । বড় মেয়ে সিরাজগঞ্জের শহীদ মুনসুর আলী মেডিকেল কলেজেে মেডিকেল এ পড়ছেন । ছেলে কুষ্টিয়া জেলা স্কুল থেকে এবার এসএসসি পরীক্ষার্থী । ডাঃ দেলদার হোসেন কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ হিসেবে নিয়োগ পাওয়ায় গাংনীর তথা মেহেরপুর জেলার মানুষ অত্যন্ত আনন্দিত ।

তাদের বক্তব্য যশোর শিক্ষা বোর্ডের মধ্যে ঐ সময় গাংনী পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয় ছিল শিক্ষাক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য । সেই স্কুলের মেধাবী ছাত্র ডাঃ দেলদার হোসেন কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ হিসেবে নিয়োগ পাওয়ায় গাংনী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও ছাত্রছাত্রীরা সবাই আনন্দিত । ডা. দেলদার সম্পর্কে গাংনী পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ইংরেজির স্বনামধন্য শিক্ষক এমদাদুল হক বড় জানান, দেলদার অত্যন্ত মেধাবীী, বিনয়ী ও চাপা স্বভাবের ছিল ।

সে ইংরেজী ও অংকসহ সকল বিষয়ে অত্যন্ত ভাল ছিল । নিজেকে কখনও ভাল ছাত্র বলে জাহির করতো না । তিনি বলেন গাংনী পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে এ পর্যন্ত যারা সবচেয়ে মেধাবী ছাত্র হিসেবে পরিচিত ছিল ডাঃ দেলদার তাদের মধ্যে অন্যতম । ডাঃ দেলদার হোসেন কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ হিসেবে নিয়োগ পাওয়ায় গাংনী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ইংরেজীর এ কৃর্তি শিক্ষক অত্যন্ত খুশী ও আনন্দিত । তিনি ডাঃ দেলদার এর সফলতা কামনা করেন ।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.