কাশ্মীরি সাংবাদিককে পুলিৎজার পুরস্কার নিতে যেতে দিল না ভারত

নিউজ ডেস্ক।।

ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের পুলিৎজার পুরস্কার বিজয়ী ফটোসাংবাদিক সানা ইরশাদ মাত্তুকে মঙ্গলবার বিদেশ যেতে দেওয়া হয়নি। দিল্লি এয়ারপোর্ট থেকে ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে তাকে। করোনা মহামারির সময় বিশেষ কাজের জন্য সানাকে পুলিৎজার পুরস্কারের জন্য মনোনীত করা হয় এবং পুরস্কার গ্রহণ অনুষ্ঠানে যোগ দিতে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে যেতে চেয়েছিলেন।

সানা জানিয়েছেন, এ রকম ঘটনা গত চার মাসে দ্বিতীয়বারের মতো ঘটলো। তাকে আটকে দেওয়া হয়েছে ইন্দিরা গান্ধী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে। প্রথমবার তার বিদেশ ভ্রমণে বাধা দেওয়া হয় গত জুলাই মাসে। সেই সময় তিনি ফ্রান্স যেতে চেয়েছিলেন একটি বই প্রকাশনা ও ফটোগ্রাফি প্রদর্শনীতে যেতে। তিনি অভিযোগ করেন বিদেশ ভ্রমণে না যেতে দেয়ার কারণ জানতে চাইলে কর্মকর্তারা কিছুই বলেননি।

এক টুইট বার্তায় সানা ইরশাদ অভিযোগ করেছেন, বৈধ ভিসা ও টিকিট থাকা সত্ত্বেও তাকে আটকে দেয়া হয়েছে। তবে তাকে কেন যেতে দেয়া হলো না সে বিষয়ে ভারত সরকারের পক্ষ থেকে কেউ কোনো বক্তব্য দেননি। সানা ফটোসাংবাদিক হিসেবে কাজ করেন বার্তা সংস্থা রয়টার্সে। ভারতে দ্বিতীয় দফা কোভিড বিস্তারের বিষয় নিয়ে আরো তিনজন সাংবাদিকের সঙ্গে তিনি ফটোগ্রাফির জন্য ২০২২ পুলিৎজার পুরস্কার লাভ করেন।

এ বছর বেশ কয়েকজন সাংবাদিক ও সংগঠনকর্মীকে ভারত থেকে বিদেশ যেতে অথবা দেশে আসতে বাধা দেওয়া হয়। এর আগে মার্চ মাসে ওয়াশিংটন পোস্টের লেখক রানা আইয়ূবকে মুম্বাই থেকে যুক্তরাজ্য যেতে বাধা দেওয়া হয়। পরে অবশ্য আদালতের অনুমোদন নিয়ে তিনি বিদেশ যান। এছাড়া এপ্রিলে অ্যামনেস্টি ইন্ডিয়ার সাবেক প্রধান আকর প্যাটেলকে ব্যাঙ্গালোর থেকে দুইবার যুক্তরাষ্ট্র যাওয়ার সময় আটকে দেওয়া হয়।

ভারতের বিভিন্ন নিরপেক্ষ সূত্র দাবি করেছে, দেশটির বর্তমান সরকার কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলের পাশাপাশি সেখানকার অধিবাসীদের বিরুদ্ধে দমন-পীড়ন বৃদ্ধি করেছে। সূত্র: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস, পার্সটুডে