কারিগরি ও মাদরাসায় টিউশন ফি মওকুফের নির্দেশ

প্রকাশিত: ৭:৫৩ পূর্বাহ্ণ, মঙ্গল, ১৯ জানুয়ারি ২১

অনলাইন ডেস্ক ||

মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে অনেক অভিভাবক আর্থিক সঙ্কটে পড়েছেন। এমতাবস্থায় সন্তানের টিউশন ফি দেয়া তাদের জন্য কষ্টসাধ্য হয়ে যাচ্ছে। তাই এমন অভিভাবকদের সন্তানদের টিউশন ফি মওকুফ বা হ্রাস করার নির্দেশনা দিয়েছে সরকার।সোমবার এ নির্দেশনা দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদ্রাসা বিভাগ। ইতোমধ্যে এ সংক্রান্ত নির্দেশনা সম্বলিত চিঠি দেশের সকল বেসরকারি কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং মাদ্রাসাগুলোতে পাঠানো হয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়েছে, করোনার কারণে গত বছরের ‘১৮’ মার্চ থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। তবুও শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো পরিস্থিতির সঙ্গে নিজেদের খাপ খাইয়ে নিয়ে শিক্ষার্থীদের শিক্ষাজীবন অব্যাহত রেখেছে। যা নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবিদার।

‘শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও শিক্ষক-কর্মচারীদের বেতন ও প্রতিষ্ঠানের রক্ষণাবেক্ষণ খাতে আবশ্যিকভাবে কিছু অর্থ খরচ হয়। তারপরও অভিভাবকদের আর্থিক সঙ্কটের কথা বিবেচনা করে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে কেবল টিউশন ফি আদায় করা যাবে। অন্য কোনো ফি নেয়া যাবে না। আর যদি অন্য কোনো ফি আদায় করা হয়, তাহলে সেটা পরবর্তীতে টিউশন ফির সঙ্গে সমন্বয় করে নিতে হবে।’

‘কোনো অভিভাবক চরম আর্থিক সঙ্কটে পতিত হলে তার সন্তানের টিউশন ফি মওকুফ বা হ্রাস করার বিষয়ে সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সিদ্ধান্ত নেবে। এটার জন্য কোনো শিক্ষার্থীর শিক্ষাজীবন যেন ব্যহত না হয়, সেটিকে খেয়াল রাখতে হবে।’

এই নির্দেশনা কেবল কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরের আওতাধীন বেসরকারি কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান (এমপিও/নন-এমপিও) এবং মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তরের আওতাধীন বেসরকারি মাদ্রাসা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের (এমপিও/নন-এমপিও) ক্ষেত্রে প্রযোজ্য, চিঠিতে উল্লেখ করা হয়।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.