করোনা নিয়ন্ত্রণে জাতীয় কারিগরি কমিটির ৫দফা সুপারিশ

গতকালের সভাটি ছিল কারিগরি কমিটির ৫৯তম সভা। এটি ভার্চ্যুয়ালি হয়। সভায় জানানো হয়, কয়েক দিন ধরে কোভিড–১৯ সংক্রমণ বাড়তির দিকে। এ নিয়ে আলোচনার পর পাঁচ দফা সুপারিশ করেন কারিগরি কমিটির সদস্যরা। এর মধ্যে আছে সব ক্ষেত্রে শতভাগ সঠিকভাবে মাস্ক পরা ও হাত ধোয়া বা সেনিটাইজার ব্যবহার নিশ্চিত করাসহ স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণের জন্য জনসাধারণকে উৎসাহিত করা। এর পাশাপাশি প্রথম, দ্বিতীয় এবং বুস্টার ডোজের করোনার টিকা যাঁরা গ্রহণ করেননি, তাঁদের টিকা গ্রহণে উদ্বুদ্ধ করারও সুপারিশ করা হয়।

বদ্ধস্থানে সভা করা থেকে বিরত থাকা ও দাপ্তরিক সভাগুলো যথাসম্ভব ভার্চ্যুয়ালি করার সুপারিশ করে কমিটি। অপরিহার্য সামাজিক অনুষ্ঠান বা সভাগুলোতে মাস্ক পরার সুপারিশও করা হয়।

আর বেসরকারি পর্যায়ে কোভিড–১৯ পরীক্ষার ব্যয় কমানোর পদক্ষেপ গ্রহণে সরকারের প্রতি আহ্বান জানায় কমিটি।

কোভিড-১৯–সংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটির সভাপতি অধ্যাপক মোহাম্মদ সহিদুল্লা আজ রোববার সকালে প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমরা এই সুপারিশগুলো সরকারের কাছে পৌঁছে দেব। সরকার এসব বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবে বলে আমরা আশা করি।