করোনার নতুন ধরন” ওমিক্রন বিএফ ৭” চিনার উপায়

অনলাইন ডেস্ক।।

দেশে করোনাভাইনাস সংক্রমণ অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে। আক্রান্ত এবং মৃতের সংখ্যা দুই-ই কমেছে। তবে নতুন করে চিনের উর্ধ্বমুখী করোনা গ্রাফ আতঙ্ক ছড়াচ্ছে সারা বিশ্বে। সাম্প্রতিককালে চিনে করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রন বিএফ৭ শনাক্ত হয়েছে। নতুন এ ধরন শনাক্ত হয়েছে ভারতেও। সেখানে চারজন আক্রান্ত হয়েছেন।

ফলে ভারতের প্রতিবেশী দেশ হিসেবে বাংলাদেশও নিরাপদ নয়। যদি না এ বিষয়ে আগেভাগে জানা যায় এবং সতর্ক হওয়া যায়। কিন্তু নতুন ওমিক্রন বিএফ৭ ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ফলে কী একই রকম লক্ষণ দেখা যায়?

বিশেষজ্ঞদের কথায়, কোভিডের কিছু প্রাথমিক লক্ষণ রয়েছে। তবে সেগুলো বাদেও বেশ কিছু অস্বাভাবিক লক্ষণ দেখা যেতে পারে নতুন ভাইরাসের আক্রমণে। লক্ষণগুলো দেখা দিলে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিত।

সাধারণ লক্ষণ

কোভিডের সাধারণ লক্ষণগুলোর মধ্যে রয়েছে কাশি, প্রচণ্ড জ্বর, গলা ব্যথা, বুকে ব্যথা, শ্বাসের সমস্যা। ভাইরাস সংক্রমণের গোড়া থেকেই এই লক্ষণগুলো ফুটে ওঠে রোগীর শরীরে।

অস্বাভাবিক লক্ষণ

কাশি, গলা ব্যথা, জ্বর সাধারণ লক্ষণ হলেও সবসময় এগুলো না-ও দেখা দিতে পারে। অনেক সময় শুধু বমি, মাথা ঘোরার মতো লক্ষণ দেখা দেয়। ঘন ঘন বমি, মাথা ঘোরা ও দুর্বলতা বোধ করার মতো লক্ষণ দেখলে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিত।

গায়ে র‌্যাশ বা ফুসকুড়ি হওয়া কোভিডের আরেকটি অস্বাভাবিক লক্ষণের মধ্যে পড়ে। হঠাৎ করেই গায়ে লাল র‌্যাশ দেখা দিলে এখন সতর্ক হওয়া উচিত। এছাড়া গায়ে পানিভরা ফুসকুড়িও হতে পারে। এমন লক্ষণ দেখলেই সঙ্গে সঙ্গে দরকারী পরীক্ষা করিয়ে নেওয়া জরুরি।

ভাইরাসের আক্রমণ থেকে কখনো কখনো পরিস্থিতি গুরুতর হতে পারে। চিকিৎসকের কথায়, রোগীর হ্যালুসিনেশন বা অপ্রকৃতিস্থ কথাবার্তা বলার লক্ষণও দেখা দিতে পারে। ভাইরাস স্নায়ুতন্ত্রে প্রভাব ফেললে এমন লক্ষণ দেখা দিতে পারে।

যাদের ডায়াবেটিস, তাদের এই সময় সতর্ক হওয়া উচিত। ভাইরাসের আক্রমণে হঠাৎই রক্তে শর্করার মাত্রা ওঠানামা করতে পারে। তাই জানা এবং সতর্ক হওয়ার কোনো বিকল্প নেই। পাশাপাশি শুরুর দিকের মতো এখনো ভালো করে হাত ধোয়া ও মাস্ক ব্যবহারের পরামর্শ চিকিৎসকদের।