করোনার টিকার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া পুরুষের চেয়ে নারীর বেশি

প্রকাশিত: ১২:৩৪ অপরাহ্ণ, শুক্র, ১৮ জুন ২১

দেহঘড়ি ডেস্ক :

করোনাভাইরাসের টিকা ভাইরাসটির বিরুদ্ধে কত শতাংশ কার্যকর তার চুলচেরা বিশ্লেষণ না-হলেও গবেষকরা বলছেন টিকার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া রয়েছে। কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া স্বাভাবিক, কিন্তু কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া যথেষ্ট উদ্বেগজনক বলেও মনে করছেন তারা।

ইতোমধ্যে অনেকেই টিকা নেওয়ার ফলে এটি স্পষ্ট হয়ে উঠেছে যে, পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াগুলো সবার জন্য একরকম নয়। যদিও অনেকে গুরুতর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার ভয়ে টিকা নেওয়া থেকে দূরে রয়েছেন। কিন্তু ব্যক্তিভেদে কেন এই ভিন্নতা- চলুন জেনে নেওয়া যাক।

আমাদের শরীর বাইরের কোনো অ্যান্টিজেনের সংস্পর্শে এলে প্রতিক্রিয়া দেখায়। টিকার মাধ্যমে যেহেতু অ্যান্টিজেন শরীরে প্রবেশ করানো হয় তাই স্বাভাবিকভাবেই পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়। এ ক্ষেত্রে মাংসপেশি বা অস্থিসন্ধিতে ব্যথা, জ্বর, শীতল অনুভূতি, মাথাব্যথা, ক্লান্ত লাগা ইত্যাদি লক্ষণ দেখা দেয়। এগুলো খুব স্বাভাবিক। তবে করো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দেওয়া, না-দেখা দেওয়া অথবা অন্য কারো মতো একই পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হওয়ার মতো বিষয়গুলো অ্যান্টিজেনের ক্ষেত্রে শরীর কীভাবে প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছে তার ওপর নির্ভর করে। ক্লিনিক্যালি গবেষণায় দেখা গেছে, ফাইজারের এমআরএনএ টিকা গ্রহণকারী প্রায় ৫০ শতাংশ লোকের কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াই ছিল না। এছাড়াও বয়স, লিঙ্গ, আগে থেকেই অসুস্থ, শারীরিক অবস্থা, অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি ওষুধের ব্যবহার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াকে প্রভাবিত করতে পারে।

বিভিন্ন গবেষণা প্রতিবেদনে দেখা গেছে, লিঙ্গভেদে করোনার টিকা এবং পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া আলাদাভাবে কাজ করে। পুরুষের তুলনায় নারীর শরীরে করোনার টিকার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া বেশি হয়। নারীদের বেশি পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় ভোগার অন্যতম একটি কারণ হতে পারে, হরমোন ইমিউন সিস্টেমের সঙ্গে কতোটা খাপ খাওয়াতে পারে তার ওপর। নারী শরীরে ইস্ট্রোজেনের মাত্রা বেশি থাকায় করোনার টিকার প্রতিক্রিয়া বেশি হতে পারে। এমনকি পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াগুলোর সময় বাড়িয়ে তুলতে পারে। হরমোনের প্রভাবে নারীর মধ্যে কিছু ভিন্ন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায়ও দেখা দিতে পারে। যেমন: বগলের নিচে ফুলে যাওয়া।

টিকা নেওয়ার পর যদি কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা না যায় তাহলে অনেকে ভাবেন টিকা কাজ করছে না। বেশিরভাগ বিশেষজ্ঞদের মতে, পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা না-যাওয়া নিয়ে উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই। প্রতিটি টিকাই একইভাবে শরীরে কাজ করে এবং পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া না দেখা দেওয়ার একমাত্র কারণ হতে পারে যে, আপনার শরীর টিকার প্রতি ভিন্নভাবে প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছে। আবার এমনও হতে পারে, প্রথম ডোজ নেওয়ার পর কারো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া সৃষ্টি না হয়ে দ্বিতীয় ডোজের সময় সৃষ্টি হতে পারে। টিকা নেওয়ার পরই শরীরে তা কার্যকর হতে শুরু করে, ফলে উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই বলে মত দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.