এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার সম্ভাব্য তারিখ ঘোষণা

প্রকাশিত: ১১:১০ পূর্বাহ্ণ, রবি, ১৯ সেপ্টেম্বর ২১

অনলাইন ডেস্ক।।

নভেম্বর মাসের ১১ তারিখ এসএসসি পরীক্ষা ও ডিসেম্বর মাসের ২ তারিখ এইচএসসি পরীক্ষার সম্ভাব্য তারিখ ধরে রুটিন প্রনয়ন ও অন্যান্য প্রস্তুতি সম্পন্ন করছে শিক্ষা বিভাগ। বিশেষ একটি সূত্র জানিয়েছে ১১ নভেম্বর কোন কারনে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত না হলে ১০ থেকে ১৫ তারিখের মধ্যে যে কোন দিন এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হবে বলে নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রনালয়।
এ সময়ে পরীক্ষা শুরুর প্রস্তুতি নিচ্ছে শিক্ষা বোর্ডগুলো। সরকারের পূর্বঘোষিত সিদ্ধান্ত অনুসারে সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে ক্লাস করিয়ে শিক্ষার্থীদের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা নেওয়া হবে। ইতোমধ্যে পরীক্ষার প্রশ্ন তৈরি হয়েছে। আগামী ১১ নভেম্বর থেকে এসএসসি পরীক্ষা ও ডিসেম্বরের ২ তারিখ এইচএসসি পরীক্ষা শুরুর দৃঢ় সম্ভাবনা রয়েছে। আর অক্টোবর মাসের শেষে এসএসসি পরীক্ষার রুটিন এবং নভেম্বরে এইচএসসি পরীক্ষার রুটিন প্রকাশ হতে পারে।
এদিকে শিক্ষা বোর্ডগুলো এসএসসি পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্টের নম্বর এন্ট্রির নির্দেশ দিয়েছে। গত ১৬ সেপ্টেম্বর থেকে শিক্ষার্থীদের নম্বর এন্ট্রির কাজ শুরু হয়েছে। এ নির্দেশনা পাওয়া শিক্ষকদের অনেকের মনেই প্রশ্ন করছেন, এসএসসি পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্টের মাধ্যমে মূল্যায়ন করা হবে না পরীক্ষা নেওয়া হবে।
এর জবাবে শিক্ষা প্রশাসনের কর্তারা বলছেন, হঠাৎ বিপুল হারে করোনা সংক্রমণ বেড়ে না গেলে সরকারি সিদ্ধান্ত অনুসারে নভেম্বরের মাঝামাঝি এসএসসি পরীক্ষা নেওয়া হবে।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে গতকাল মঙ্গলবার ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক নেহাল আহমেদ সাংবাদিকদের বলেন, পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী নভেম্বরে পরীক্ষা নিতে প্রস্তুতি চলছে। এজন্য একাধিক মিটিং করছি। ছুটিসহ সব দিক বিবেচনা করেই রুটিন তৈরি করতে হবে। পরীক্ষার অন্তত ১৫ দিন আগে রুটিন প্রকাশ করতে পারব।
পরীক্ষা কবে নাগাদ শুরু হতে পারে জানতে চাইলে অধ্যাপক নেহাল আহমেদ বলেন, ১০ নভেম্বর থেকে ১৫ নভেম্বরের মধ্যে পরীক্ষা শুরুর পরিকল্পনা আছে। তবে নির্দিষ্ট তারিখ এখনই বলা যাচ্ছে না। এ বিষয়ে মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাব পাঠানো হবে। অনুমোদন পেলে সে হিসেবে পরীক্ষার সূচি চূড়ান্ত করা হবে।
ঢাকা বোর্ডর চেয়ারম্যান আরো বলেন, এসএসসি পরীক্ষা নেওয়ার সব প্রস্তুতি শেষ করেছি। ইতোমধ্যে প্রশ্ন তৈরি করা হয়েছে। পরীক্ষার জন্য প্রস্তুত থাকতেই হবে। যেহেতু এটি একটি পাবলিক পরীক্ষা। সরকার ঘোষণা দিলে ১৫ দিনের মধ্যেই পরীক্ষা নিতে পারবে শিক্ষা বোর্ডগুলো-সেরকমভাবেই প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।
এ বিষয়ে যশোর শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মোল্লা আমির হোসেন বলেন, শিক্ষাবোর্ডগুলো পরীক্ষা নেওয়ার জন্য প্রস্তুত। পরীক্ষার সার্বিক প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরীক্ষা আয়োজনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। আমরা পরীক্ষার প্রশ্নও প্রস্তুত করে ফেলেছি।
এদিকে ঢাকা বোর্ডের একটি সূত্র জানায়, আগামী ১১ নভেম্বর থেকে এসএসসি পরীক্ষা শুরুর সম্ভাবনা আছে। সেভাবেই রুটিনের খসড়া প্রস্তাবনা করা হবে। তবে শিক্ষা মন্ত্রণালয় এতে আপত্তি জানালে তারিখ পরিবর্তন হতে পারে।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.