এবার প্রশিক্ষণ পাবেন সরকারি কর্মকর্তারা

সরকারি কর্মকর্তাদের সক্ষমতা বাড়াতে প্রশিক্ষণের নির্দেশ দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয় বা মন্ত্রণালয়ের অধীন বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে নিয়োগবিধি প্রণয়ন ও সংশোধনের প্রস্তাব সঠিকভাবে প্রস্তুত করার লক্ষ্যে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

গতকাল (২২ জানুয়ারি) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের উপ-সচিব মো. কামরুল হাসান স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত একটি নির্দেশনা দেওয়া হয়৷

এর আগে সরকারি কর্মকর্তাদের নিয়োগবিধি এবং প্রবিধানমালা প্রণয়নে সরকারি কর্মকর্তাদের সক্ষমতা বাড়ানোর লক্ষ্যে প্রশিক্ষণের নির্দেশ দেয় জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়৷

ওই নির্দেশনায় বলা হয়, বিভিন্ন মন্ত্রণালয়/বিভাগের অধীন বিভিন্ন দপ্তর/সংস্থা/প্রতিষ্ঠানসমূহ থেকে নিয়োগবিধি/প্রবিধানমালা প্রণয়ন ও সংশোধনের প্রস্তাব যথাযথ ও সঠিকভাবে প্রেরিত না হওয়ায় নিয়োগবিধি প্রণয়নে দীর্ঘসূত্রিতা দেখা দেয়। ফলে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা অথবা কর্মচারীদের নিয়োগ, পদোন্নতি, চাকরি নিয়মিতকরণ ও চাকরি স্থায়ীকরণে জটিলতার সৃষ্টি হয়। এতে একদিকে যেমন সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান ক্ষতিগ্রস্ত হয় অন্যদিকে কর্মকর্তা/কর্মচারীদের মধ্যে হতাশার সৃষ্টি হয় এবং দাপ্তরিক কাজে গতিশীলতা হ্রাস পাওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়।

নির্দেশনায় নিয়োগবিধি এবং প্রবিধানমালা প্রণয়নে সরকারি কর্মকর্তাদের সক্ষমতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সব মন্ত্রণালয়/বিভাগে এ সংক্রান্ত প্রশিক্ষণ আয়োজন করতে বলা হয়। একই সঙ্গে এসব প্রশিক্ষণে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের বিধি অনুবিভাগের কর্মকর্তারা উপস্থিত থেকে প্রশিক্ষণ দেওয়ার কথা বলা হয়। এ লক্ষ্যে সব মন্ত্রণালয়/বিভাগকে চিঠি পাঠাতে বলা হয়েছে।