এক কলমের দাম ২৬ হাজার

শিক্ষাবার্তা ডেস্কঃ কলম শব্দটির সঙ্গে ছোট-বড় সকলেই আমরা পরিচিত। আপনি জানলে অবাক হবেন, বর্তমানে কলম যতটা সহজলভ্য ও কম দামে ক্রয় করা যাচ্ছে অতীতে তা হতো না। সে সময় কলমের কদর শুধু ধনীরা করতেন। বিলাসিতার উপকরণ হিসেবে ব্যবহৃত হতো কলম। প্রতিদিন নানা কাজে আমরা কলম ব্যবহার করে থাকি। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে শুরু করে, ব্যবসা ও সরকারি-বেসরকারি প্রতিটি ক্ষেত্রেই কলমের ব্যবহার রয়েছে। বিভিন্ন মানুষ বিভিন্ন দামের কলম ব্যবহার করেন। কোম্পানি-ভেদে সেই কলমগুলোর মূল্য ১০-৫০ টাকা।

তবে এবারের বাণিজ্যমেলায় এমন একটি কলম রয়েছে যার দাম ২৬ হাজার টাকা। এবারের বাণিজ্যমেলায় পাইলট কাস্টম ৮২৩ ফাউন্টেন পেন (কলম) নামের একটি কলম পাওয়া যাচ্ছে পাইলট ব্র্যান্ডের স্টলে। যার দাম ২৬ হাজার টাকা। জাপানি কলম প্রস্তুতকারক কোম্পানি পাইলট করপোরেশন এই কলম তৈরি করেছে। দেশে পাইলট কলমের একমাত্র পরিবেশক কিউ অ্যান্ড কিউ ট্রেডিং লিমিটেড।

প্রতিষ্ঠানটির জ্যেষ্ঠ ব্র্যান্ড নির্বাহী মারজুক আল হক বলেন, মূলত কাস্টম ৮২৩ পাইলটের ফ্লাগসিপ মডেলের একটি কলম। ৩০ গ্রাম ওজনের কলমটির নিবে রয়েছে ১৮ ক্যারেট মানের সোনার প্রলেপ। এ ছাড়া কলমটির সঙ্গে থাকছে একটি কালির বাক্স। যেটাতে ৭০ মিলিলিটার কালি রয়েছে। এই কলমে কোনো কার্টিজ বা কনভার্টর ব্যবহার করে কালি প্রবেশ করাতে হয় না, এটিতে ভ্যাকুয়াম প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে। অন্যান্য মডেলের ফাউন্টেন পেন থেকে এর কালির ধারণক্ষমতা অনেক বেশি। সাধারণত ক্যালিগ্রাফি, কারসিভ ধরনের লেখা, স্বাক্ষর করা, সনদপত্র লেখা ইত্যাদি কাজে কলমটি ব্যবহার করা হয়।

মেলায় ২৬ হাজার টাকা মূল্যের এই কলম বিক্রি হয়েছে কি-না এমন প্রশ্নে মারজুক বলেন, ‘ইতিমধ্যে আমরা একটি পাইলট কাস্টম ৮২৩ ফাউন্টেন পেন বিক্রি করেছি। এ ছাড়া আমাদের স্টলে সর্বনিম্ন ২৫ টাকা থেকে শুরু করে ১০-১২ হাজার টাকা দামের কলম রয়েছে। ক্রেতারা তাদের পছন্দ অনুযায়ী কলম কিনছেন। আশাকরি, মেলার শেষ দিকে দর্শনার্থীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেলে কলম বিক্রিও বাড়বে।’

ফাইজুল করিম নামের একজন দর্শনার্থী বলেন, ‘পাইলট কলম আশির দশকে আমরা ব্যবহার করেছি। মেলায় এসে তাদের স্টল দেখে এসেছি কলম দেখতে। এখানে এসে শুনেছি একটি কলমের দাম ২৬ হাজার টাকা। তবে আমাদের এত দামের কলম কেনার সাধ্য নেই। তবে ব্যবহারের জন্য কিছু কলম কিনে নিয়ে যাব, সেগুলো পছন্দ করছি।’

শিক্ষাবার্তা ডট কম/এএইচএম/০১/২১/২৩