আড়াই লাখ মানুষ ক্যান্সারে আক্রান্ত হচ্ছে বছরে

অনলাইন ডেস্ক।।

দেশের মানুষের খাদ্যাভ্যাস আর অনিয়মতান্ত্রিক জীবনযাপনের কারণে ক্যান্সার আক্রান্তের সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলছে।

বাংলাদেশে প্রতিবছর আড়াই লাখ মানুষ নতুন করে ক্যান্সারে আক্রান্ত হচ্ছে। এ পরিস্থিতির জন্য খাদ্যে ভেজাল আর বায়ুদূষণকেও দায়ী করছেন স্বনামধন্য ক্যান্সার বিশেষজ্ঞরা।

বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজধানীর আর্মি গলফক্লাবে দুই দিনব্যাপী অনকোলজি ক্লাব আয়োজিত ‘বাংলাদেশ ক্যান্সার কংগ্রেসে’এই উদ্বেগের কথা জানান ক্যান্সার বিশেষজ্ঞরা।

সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অনকোলজি ক্লাব বাংলাদেশ ও ক্যান্সার কংগ্রেসের প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক ডা. এম এ হাই বলেন, বাংলাদেশসহ উন্নয়নশীল বিশ্বে ক্যান্সার রোগীর ক্রমবর্ধমান সংখ্যা আশঙ্কাজনক। দেশে বর্তমানে বিপুল জনগোষ্ঠী এই রোগে আক্রান্ত, যার বেশিরভাগই  চিকিৎসার আওতার বাইরে।

দেশে ক্যান্সার চিকিৎসার আধুনিকায়নে মানসম্পন্ন ও দক্ষ জনবল তৈরি করাই ক্লাবের মূল উদ্দেশ্য জানিয়ে ডা. হাই বলেন, ক্যান্সার জয় করতে এবং দেশের ক্রমবর্ধমান ক্যান্সার রোগী ও তাদের পরিবারের মুখে হাসি ফোটাতে সবাইকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে।

প্রতি জেলায় ক্যান্সার ইউনিট গড়ে তোলার সরকারি সিদ্ধান্তের ভূয়সী প্রশংসাও করেন তিনি। তরুণ চিকিৎসকদের ক্যান্সার চিকিৎসায় এগিয়ে আসার আহ্বান জানান বর্ষীয়ান এই ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ।

দুই দিনব্যাপী এই আন্তর্জাতিক কনফারেন্সের একাডেমিক পার্টনার হিসেবে যুক্ত আছে যুক্তরাষ্ট্রের হার্ভার্ড মেডিকেল স্কুল, ইতালির বলোনিয়া ইউনিভার্সিটি, ন্যাশনাল ক্যান্সার সেন্টার সিঙ্গাপুর, ভারতের টাটা মেমোরিয়াল হসপিটাল ও রাজীব গান্ধী ক্যান্সার ইনস্টিটিউট অ্যান্ড রিসার্চ সেন্টার।

এতে উপস্থিত ছিলে কানাডার ইউনিভার্সিটি অব অটোয়া, এমনএইচইপিএল, যুক্তরাজ্যের হুইপস ক্রস ইউনিভার্সিটি হসপিটাল, ব্যাকিংহাম শিয়ার হেলথকেয়ার, বার্টস ক্যান্সার সেন্টার, গ্লোবাল হেলথ ক্যাটালিস্ট, পিজিআইএমইআর, হোপ রেডিয়েশন ক্যান্সার সেন্টার, ইতালির রেডিয়েশন অনকোলজি সেন্টার, এসসিজি ক্যান্সার সেন্টার, ফ্লিন্ডার্স প্রাইভেট হসপিটাল, ন্যাশনাল হসপিটাল অ্যান্ড ক্যান্সার রিসার্চ সেন্টার, মনিপাল হসপিটাল, এসেক্স হসপিটাল গ্রুপ, ইউনিভার্সিটি অব পিসবার্গ, সঞ্জয় গান্ধী পোস্ট গ্র্যাজুয়েট ইন্সিটিউট অব মেডিসিন সায়েন্স, হেভরিং অ্যান্ড রেডব্রিজ ইউনিভার্সিটি হসপিটাল।

উপস্থিত ছিলেন, বাসাভাতারাকাম ইন্দো-আমেরিকান ক্যান্সার হসপিটাল অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউট, ম্যাক্স ইনস্টিটিউট অব ক্যান্সার কেয়ার, অ্যাপোলো প্রোটন ক্যান্সার সেন্টার এবয় ইউনিভার্সিটি অব পেনিসিলভেনিয়ারের ক্যান্সার চিকিৎসক ও গবেষকরা। অংশ নিয়েছেন দেশের খ্যাতনামা ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ (অনকোলজিস্ট), বৈজ্ঞানিক ও গবেষকবৃন্দ।

সবমিলিয়ে এই আয়োজনে বিশ্বের ১৮টি দেশের মোট ৪০জন বিখ্যাত ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ যোগ দিয়েছেন।