অধিকার ও সত্যের পক্ষে

রাজনৈতিক সমঝোতার আগে তফসিল ঘোষণা গণআকাঙ্খার পরিপন্থী: খালেকুজ্জামান

 আল আমিন হোসেন মৃধা, জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক ॥
ঘোষিত নির্বাচনী তফসিল স্থগিত করে পুনঃতফসিল ঘোষণা করুন, রাজনৈতিক সমঝোতার আগে তফসিল ঘোষণা নয় উল্লেখ করে  বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ এর সাধারণ সম্পাদক কমরেড খালেকুজ্জামান বলেন, ১৯৭৩ সাল থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত ১০টি সংসদ নির্বাচন হয়েছে। তাতে অবাধ নির্বাচনের মাধ্যমে নিয়মতান্ত্রিক ক্ষমতা হস্তান্তরের পথ সুগম হয়নি, পার্লামেন্টারী ব্যবস্থা কার্যকারীতা লাভ করেনি, সুশাসন কিংবা গণতান্ত্রিক শাসন প্রতিষ্ঠা পায়নি, জনগণের ক্ষমতায়ণ হয়নি, দিনে দিনে পার্লামেন্ট ব্যবসায়ীদের ক্লাব এর রূপ নিয়েছে। রাজনীতিকে অঢেল অর্থ-বিত্ত উপার্জনের হাতিয়ার বানানো হয়েছে, দুর্বৃত্তায়িত রাজনৈতিক প্রক্রিয়ায় দুর্বৃত্ত এবং কায়েমী স্বার্থবাদীদের হাতে রাজনৈতিক ক্ষমতা চলে গেছে।

শুক্রবার বেলা ৩:৩০টায় ৩৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও রাশিয়ার মহান অক্টোবর সমাজতান্ত্রিক বিপ্লবের ১০১তম বার্ষিকী উপলক্ষে ০৯ নভেম্বর ২০১৮  ঢাকাস্থ জাতীয় ক্লাবের সমানে সমাবেশ একথা বলেন।

সমাবেশে কমরেড খালেকুজ্জামান বলেন, গত ৭ নভেম্বর ছিল আমাদের দলের ৩৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও রুশ বিপ্লবের ১০১তম বার্ষিকী। সেই উপলক্ষে আজকে আমাদের এই জনসমাবেশ। এই সমাবেশে আমরা এমন সময়ে মিলিত হয়েছি যখন দেশে রাজনীতির ময়দান থেকে অতীতের অশুভ ছায়ার বিস্তার সরেনি। জাতীয় রাজনৈতিক সংলাপের মধ্যদিয়ে জনগণের যে আশাবাদ তৈরি হয়েছিল তা পূরণ হয়নি, পাশাপাশি আশঙ্কার যে কালোমেঘ জমাট বাধাছিল তাও প্রত্যাশিতরূপে সরানো যায়নি। সংলাপ শেষ হলেও আলোচনা শেষ হয়নি, এই ঘোষণা সরকারের পক্ষ থেকে থাকার পরও তড়িঘড়ি ১ দিনের মাথায় নির্বাচন তফসিল ঘোষণার মধ্যদিয়ে নির্বাচন কমিশন তাদের প্রতি অনাস্থার একটি বাড়তি বোঝা স্বেচ্ছায় মাথায় তুলে নিলেন। তফসিল পরিবর্তনের অতীত নমুনা ও বিদ্যমান বাস্তবতায় আমরা এ সভা থেকে তা স্থগিত এবং পিছিয়ে নেবার দাবি জানাচ্ছি। শাসক দল সংলাপে যতটা আন্তরিকতা প্রদর্শন করেছেন তার চেয়েও বেশি ক্ষমতার হারানোর ঝুঁকি ও অশুভ শক্তির অনুপ্রবেশ আশঙ্কার ইঙ্গিত করে সন্তোষজনক সমাধানের পথ এড়িয়ে গেছেন। দলিল জরীপে তালগাছটির মালিকানা নির্ধারণের পরিবর্তে তালগাছটি আমার এই সিদ্ধান্তে কর্তব্য কর্ম পালনে তারা অবিচল রয়েছেন। ফলে একটা সংকট কাটাতে গিয়ে আরেকটা বড় সংকট তৈরির অতীত পুনরাবৃত্তির দিকেই দেশকে ঠেলে দেয়া হলো কিনা সে উৎকণ্ঠা থেকেই গেলো।

DSC_0478 copyসমাবেশ শেষে দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর লাল পতাকার মিছিল

তিনি বলেন, সুষ্ঠু নির্বাচন ও সুশাসন প্রতিষ্ঠার জন্য অবশ্য প্রয়োজনীয় ভারসাম্যমূলক যে প্রথা প্রতিষ্ঠানসমূহ থাকা দরকার যেমন বিচার ব্যবস্থা, নির্বাচন কমিশন, দুর্নীতি দমন কমিশন, আমলা প্রশাসন, আইনশৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনী ইত্যাদির গণতন্ত্রায়ণ জরুরি। পাশাপাশি রাজনৈতিক পরিবেশ, রাজনৈতিক দলসমূহের আচরণ ও সংস্কৃতি, আইন কানুন বিধি বিধান ইত্যাদির গণতন্ত্রায়ণও সমভাবে প্রযোজ্য। কিন্তু স্বাধীনতাত্তোর ভ্রষ্ট পথে নষ্ট রাজনীতি দ্বারা দেশ পরিচালিত ও শাসিত হওয়ার কারণে স্বাধীনতার ৪৮ বছর পরও একটা সুষ্ঠ নির্বাচন করার ক্ষমতা শাসক বুর্জোয়াশ্রেণি হারিয়ে ফেলেছে। অর্থ ব্যবস্থাকে লুটপাটের স্বেচ্ছাচারে নিয়ে গেছে। সাদা অর্থনীতিকে কালো অর্থনীতি ঢেকে ফেলেছে। ব্যাঙ্ক লুট, পুঁজিবাজারের অর্থ লুট, বিদেশে লক্ষ হাজার কোটি টাকা পাচার চলছে লাগামহীনভাবে।

 বাসদ ঢাকা মহানগর আহ্বায়ক কমরেড বজলুর রশীদ ফিরোজের সভাপতিত্বে ও বাসদ নারায়ণ গঞ্জ জেলা বাসদের আহবায়ক কমরেড কমরেড নিখিল দাসের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে এছাড়াও বক্তব্য রাখেন বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য কমরেড রাজেকুজ্জামান রতন।

একই ধরনের আরও সংবাদ