অধিকার ও সত্যের পক্ষে

জেনে নিন প্রাথমিক শিক্ষকদের বদলির শর্তগুলো

 নিজস্ব প্রতিবেদক| |

কাটলো প্রাথমিক শিক্ষকদের বদলি জড়তা। প্রাথমিক শিক্ষকদের বদলির নির্দেশিকা জারি করেছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। এতে বলা হয়েছে, সাধারণভাবে প্রধান শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষকদের প্রতি শিক্ষাবছরের জানুয়ারি মার্চ মাসের মধ্যে একই উপজেলা বা থানায় , আন্তঃউপজেলা বা থানা, আন্তঃজেলা, আন্তঃসিটি করপোরেশন ও আন্তঃবিভাগ বদলি করা যাবে।

বদলির সময়কাল ব্যাতিত অন্য যে কোনো সময়, কোনো বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষকের পদ শূন্য হলে উক্ত পদ নিয়োগ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে তাৎক্ষণিকভাবে পূরণ করা সম্ভব না হলে বিভাগীয় উপপরিচালক নিজ অধিক্ষেত্রে ও সংশ্লিষ্ট সিটি এলাকার মধ্যে এবং মাহপরিচালক প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর প্রধান শিক্ষক পদে আন্তঃবিভাগ বদলি করতে পারবেন।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার সহকারী শিক্ষকদের বদলির আদেশ দিতে পারবেন। জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসাররা অনুমোদস দিলে উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার বদলির আদেশ জারি করবেন।

বদলির শর্তাবলী

#শিক্ষক বদলির ক্ষেত্রে সিটি করপোরেশন ও উপজেলাকে একক ইউনিট হিসেবে বিবেচনা করা হবে। পৌরসভা সংশ্লিষ্ট উপজেলার একই ইউনিট হিসেবে বিবেচিত হবেন।

#পৌরসভা সংশ্লিষ্ট উপজেলার একই ইউনিট হিসেবে বিবেচি হবে।

#সহকারী শিক্ষক পদে চাকরির মেয়াদ নূন্যতম ২ বছর পূর্ণ হলে এবং পদ শূন্য থাকলে বদলি করা যাবে।

#বদলির পর তিন বছর পূর্ণ না হলে পুনরায় বদলি করা যাবে না।

#উপজেলা ও থানার মধ্যে একই পদে একাধিক জন বদলির আবেদন করলে জেষ্ঠ্যতার তালিকার ভিত্তিতে বদলি করা হবে। কোনোভাবেই জেষ্ঠ্যতা লংঘন করে বদলি করা যাবে না।

#উপজেলা বা থানায় কোনো পদ শূন্য হলে সংশ্লিষ্ট উপজেলায়/ থানার অধিবাসী প্রার্থীগণ সেই পদে বদলিতে অগ্রধিকার পাবেন।

#চাকরি লাভের পর বৈবাহিক বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন এমন শিক্ষক স্বামী/স্ত্রীর স্থায়ী ঠিকানায় বদলি হতে ইচ্ছুক হলে তাদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে শূন্য পদের বিপরীতে বদলি করা যাবে। একই পদে একাধিক জন বদলির আবেদন করলে জেষ্ঠ্যতার তালিকার ভিত্তিতে বদলি করা হবে।

#কোনো শিক্ষকের স্ত্রী/স্বামী সরকারি, আধা সরকারি বা স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠান, সরকারি ব্যাংকে চাকরি করলে তাদের স্বামী/স্ত্রীর কর্মস্থলে বদলি করা যাবে।

#প্রশাসনকি প্রয়োজনে যে কোনো সময় কোনো শিক্ষকদের বদলি করা যাবে।

একই ধরনের আরও সংবাদ