অধিকার ও সত্যের পক্ষে

প্রয়োজনে ডাকসু সংবিধান পরিবর্তন করা হবে: ঢাবি ভিসি

 ঢাবি প্রতিনিধি ||

প্রয়োজনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদের গঠনতন্ত্র পরিবর্তনও করা হতে পারে মন্তব্য করেছেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান। বুধবার বেলা ১২ টায় উপাচার্য অফিস সংলগ্ন অধ্যাপক আব্দুল মতিন চৌধুরী ভার্চুয়াল ক্লাশ রুমে হল ভিত্তিক শিক্ষার্থীদের ডাটাবেজ প্রকাশ অনুষ্ঠানে সাংবাধিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি এ মন্তব্য করেন।

এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৮টি হলের ৩৮ হাজার ৪ শত ৯৩ জন শিক্ষার্থীদের ডাটাবেজ প্রকাশ করা হয়। এরমধ্যে রয়েছে ১৩টি ছাত্র হলে ২৩ হাজার ৯ শত ৮৪ জন ও ৫টি ছাত্রী হলে ১৪ হাজার ৫ শত ৯ জন শিক্ষার্থী। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) ড. সামাদ, উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. নাসরীন আহমাদ ও বিভিন্ন হলের প্রাধ্যক্ষ। আগামী ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা ডাটাবেজে কোন রকমের ভুল থাকলে তা সংশ্লিষ্ট হল অফিসের মাধ্যমে সংশোধন করে নিতে পারবে।

ঢাবি উপাচার্য বলেন, এটি আমাদের একটি প্রাথমিক ও খুবই বড় কাজ। আমরা বিভিন্ন হলের শিক্ষার্থীদের ডাটাবেজ প্রকাশ করেছি এর থেকে ভোটার তালিকা তৈরী করা সহজ হবে। এছাড়া শিক্ষার্থীরা এটি থেকে বিভিন্নভাবে উপকৃত হতে পারবে।

অধিভূক্ত কলেজের শিক্ষার্থীরা কি ডাকসু নির্বাচনে অংশ নিতে পারবে কিনা সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের উত্তরে উপাচার্য বলেন, আমাদের ডাকসু সংবিধান অনুযায়ীই আমরা সকল ধরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করবো। খুব সম্ভবত তারা অংশ গ্রহণ করতে পারবে না, কারণ এগুলোতো সরকারী কলেজ, এক্ষেত্রে তাদের নিজস্ব ব্যবস্থাপনা থাকতে পারে।

দীর্ঘদিন ডাকসু নির্বাচন হয়নি, বিশ্ববিদ্যালয়ে অনেক কিছুই পরিবর্তন হয়ে গেছে এক্ষেত্রে গঠনতন্ত্রে পরিবর্তন করা হবে কিনা প্রশ্নের উত্তরে অধ্যাপক আখতারুজ্জামান বলেন, যদি প্রয়োজন হয় বা আলোচনা আসে তাহলে অবশ্যই প্রশাসন এ নিয়ে ব্যবস্থা নিবেন। এর কোনকিছু পরিবর্তন, পরিবর্ধন করা লাগলেও করা হতে পারে।

একই ধরনের আরও সংবাদ