অধিকার ও সত্যের পক্ষে

আদালতকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে আইসিটি শিক্ষকের ই-রিকুইজিশন গ্রহণ

 সামিউল ইসলামঃ

ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মানে যাদের অবদান সবচেয়ে বেশি, তারা হলেন আইসিটি শিক্ষক । দেশে এখনো অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আইসিটি শিক্ষক নাই। সারাদেশে জাতীয়ভাবে একযোগে বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে গত ২০১৬ সালে প্রথমবারের মতো এনটিআরসিএ শিক্ষক নিয়োগ দেয়। কিন্তু দুঃখের বিষয় আইসিটি বিষয়ে সবচেয়ে বেশি শূন্যপদ থাকা সত্বেও এবং হাজার হাজার নিবন্ধনধারী এনটিআরসিএতে অনলাইনে আবেদন করা সত্বেও তাদের নিয়োগ দেওয়া হয়নি ।
এনটিআরসিএতে শিক্ষক নিয়োগের আবেদন চলাকালীন ১ম ৩দিন এনটিআরসিএ সার্ভারে আইসিটি শিক্ষকের যোগ্যতার জায়গায় স্পষ্ট করে লেখা ছিল কমপক্ষে স্নাতক ডিগ্রিসহ এনটিআরসিএ স্বীকৃত প্রতিষ্ঠান হতে কম্পিউটার বিষয়ে কমপক্ষে মাসের প্রশিক্ষন থাকতে হবে। তারপর হঠাৎ করে সার্ভারে যুক্ত করা হলো কম্পিউটার বিষয়ে বছরের ডিপ্লোমা। কিন্তু প্রথম ৩দিনেই তো হাজার হাজার নিবন্ধনধারী অনলাইনে অবেদন করে লাখ লাখ টাকা এনটিআরসিএকে দিয়েছে । নিবন্ধনধারীদের কেউ কেউ ৭০৮০ টি প্রতিষ্ঠানেও আলাদা আলাদাভাবে আবেদন করেছে। প্রতি প্রতিষ্ঠানের বিপরীতে আলাদাভাবে পেমেন্ট করেছে।  মাসের কম্পিউটার প্রশিক্ষনে আইসিটির নিবন্ধনধারীর সংখ্যা প্রায় ৮০ শতাংস ।
তারা এনটিআরসিএ বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে রিট করেন।  উচ্চ আদালত থেকে রিটকারীদের পক্ষে রায় প্রদান করা হয়। তারপর এনটিআরসিএ রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করেন । আপিলের শুনানির পূর্বেই আবার এনটিআরসিএ প্রতিষ্ঠানের কাছে শূন্যপদের তালিকা চায় । ২০১৬ সালে যেসকল প্রতিষ্ঠান আইসিটির চাহিদা দিয়েছিল, সেসব প্রতিষ্ঠান আবার নতুন করে চাহিদা দিচ্ছে । উচ্চ আদালত যদি রিটকারীদের পক্ষে আপিলের রায় দেয় তাহলে  যারা ২০১৬ সালে ঐসকল প্রতিষ্ঠানে আবেদন করেছিল তাদের কী হবে ? আর যারা বছর নতুন করে আবেদন করবে তাদেরই বা কী হবে ? বিষয়টি কি আদালতের প্রতি বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখানোর মত হয়ে গেল না ? এনটিআরসিএ রিকুইজিশনের সার্কুলারে বলতে পারতো যেসব প্রতিষ্ঠান পূর্বে আইসিটির রিকুইজিশন পাঠিয়েছে, তাদের নতুন করে পাঠানোর প্রয়োজন নাই ।
তাছাড়াও কারিগরি স্কুলে কিংবা জেনারেলের সাথে ভোকেশনালযুক্ত স্কুলে কম্পিউটার ডেমোনস্ট্রেটর নামে একটি পদ রয়েছে । পদের জন্যও পূর্বে মাসের কম্পিউটার প্রশিক্ষন হলেই হতো। ২০১৮ এর এমপিও নীতিমালায় কমপক্ষে বছর মেয়াদী কম্পিউটার ডিপ্লোমার কথা উল্লেখ করা হয়েছে । কিন্তু এনটিআরসিএ রিকুইজিশন অপশনে কম্পিউটার ডেমোনস্ট্রেটর পদ না থাকায় প্রতিষ্ঠান পদের চাহিদা পাঠাতে পাচ্ছে না ।
বিষয়ে এনটিআরসিএসহ উর্ধ্বতন কর্কৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি ।

লেখকঃ শিক্ষক ও সাংবাদিক

একই ধরনের আরও সংবাদ