অধিকার ও সত্যের পক্ষে

গোপালপুর কলেজ সরকারিকরণ করায় আনন্দ র‌্যালি

 গুলসান আরা এমি

টাঙ্গাইলের গোপালপুর কলেজ সরকারিকরণ করায় বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, শিক্ষামন্ত্রী নূরুল ইসলাম নাহিদ ও স্থানীয় সংসদ সদস্য খন্দকার আসাদুজ্জামানকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়ে আজ ৩ সেপ্টেম্বর সোমবার সকাল ১০টায় এক বর্ণাঢ্য আনন্দ র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়েছে। কলেজ পরিচালনা পরিষদ, শিক্ষক, কর্মচারী, শিক্ষার্থী, অভিভাবক, জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক ও উপজেলাবাসীর সমন্বয়ে কলেজ চত্বর থেকে শুরু হয়ে এক বর্ণাঢ্য আনন্দ র‌্যালি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে কলেজ চত্বরে এসে সংক্ষিপ্ত সমাবেশেষের মধ্যে দিয়ে শেষ হয়।

বর্ণাঢ্য আনন্দ র‌্যালি ও সংক্ষিপ্ত সমাবেশে অংশ নেন, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী এবং স্থানীয় সাংসদ পুত্র খন্দকার মশিউজ্জামান রোমেল, জেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ও আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে টাঙ্গাইল ২ (গোপালপুরভূঞাপুর) আসন হতে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী তানভীর হাসান ছোট মনির, পৌর মেয়র মো. রকিবুল হক ছানা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. সাইফুল ইসলাম তালুকদার সুরুজ, কলেজ অধ্যক্ষ মো. আনোয়ারুল ইসলাম আকন্দ, উপাধ্যক্ষ মো. মানিকুজ্জামান, ধোপাকান্দি ইউপি চেয়ারম্যান মো. আবদুল হাই, হেমনগর ইউপি চেয়ারম্যান মো. রওশন খান আইয়ুব, ঝাওয়াইল ইউপি চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম তালুকদার, শহর আওয়ামী লীগ সভাপতি এস এম রফিকুল ইসলাম রফিক, উপজেলা ছাত্রলীগ আহবায়ক মঞ্জুরুল হক ফরিদ প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ৩০ জুন প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে সারা দেশের ১৯৯টি কলেজ সরকারিকরণের তালিকা থেকে গোপালপুর কলেজ বাদ দিয়ে একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় অভিযুক্ত আবদুস সালাম পিন্টুর প্রতিষ্ঠিত মেহেরুন্নেচ্ছা মহিলা কলেজের নাম অর্ন্তভূক্ত করায় কলেজ শিক্ষক শিক্ষার্থী ও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করে।

প্রতিবাদে উপজেলা আওয়ামীলীগ ও সর্বস্তরের জনগণের ব্যানারে পৌরশহরে লাগাতার বিক্ষোভ মিছিল সমাবেশ হরতাল কর্মসূচী পালনসহ প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলীপি প্রদান করলে মেহেরুনেচ্ছা মহিলা কলেজের নাম কর্তন করে গোপালপুর কলেজের নাম অর্ন্তভূক্ত করা হয়।

একই ধরনের আরও সংবাদ