অধিকার ও সত্যের পক্ষে

ক্লাসে ফেরাতে ছাত্রদের সঙ্গে গুলি খেলেন প্রধানশিক্ষন!

 শিক্ষাবার্তা ডেস্কঃ

গুলি খেলায় কয়েকজন শিক্ষার্থী এতোই আসক্ত হয়ে পড়ে যে, স্কুলের নাম করে বাসা থেকে বের হলেও ক্লাস আর তাদের করা হতো না।

রঙ বেরঙের সেই গুলিই তাদের ধ্যান-জ্ঞান। দূর থেকে কোনও শিক্ষককে আসতে দেখলেই সটান উঠে পড়তো গাছের মগডালে। ভয় একটাই, শিক্ষক যদি ফের স্কুলে ধরে নিয়ে যান!

অবশেষে ভারতের মুর্শিদাবাদের ওই স্কুলের প্রধাণশিক্ষক স্কুল পালানো ছাত্রদের ক্লাসে ফেরাতে নজিরবিহীন এক কাণ্ড ঘটালেন। খবর আন্দবাজার পত্রিকার।

মুর্শিদাবাদের ট্যাংরামারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অসীমকুমার অধিকারী একদিন লক্ষ্য করলেন, চতুর্থ শ্রেণির ইকবাল, নাজরুল আর মফিজুল স্কুলে আসার পথে বাঁশবাগান দিয়ে নির্জন মাঠ গিয়ে গুলি খেলছে। নিয়মিতই তারা ক্লাসে অনুপস্থিত। তার কারণটাও তিনি ধরে ফেললেন।

চুপিসাড়ে ওই তিন ছাত্রকে গুলি খেলায় ধরে ফেলেন তিনি। কিন্তু মারধর বা বকুনি না দিয়ে তাদেরকে গিয়ে বললেন, ‘কই, একটা গুলি দে তো। আজ তোদের সঙ্গে এক দান খেলেই স্কুলে যাব।’

মুর্শিদাবাদের ট্যাংরামারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ওই তিন ছাত্র এখন নিয়মিত স্কুলে আসছে। টিফিনে স্কুলের মাঠে গুলিও খেলছে। উপরিপাওনা নতুন এক সঙ্গী— স্কুলের প্রধানশিক্ষক!

হাতের ধুলা ঝাড়তে ঝাড়তে প্রধানশিক্ষক অসীমকুমার অধিকারী বললেন, ‘টিফিনে ওদের একটু সঙ্গ দিচ্ছি। নইলে আবার পালাবে যে!’

আর স্কুল পালানো ওই ছাত্ররাও জানালো তারা আর স্কুল পালাবে না, কারণ টিফিনে তারা এখন স্কুলেই গুলি খেলতে পারছে। তাও আবার প্রধানশিক্ষকের সঙ্গে।

একই ধরনের আরও সংবাদ