অধিকার ও সত্যের পক্ষে

জাতীয়করণ হচ্ছে আরও তিনটি কলেজ

 নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
মামলার কারণে আটকে যাওয়া তিনটি কলেজ জাতীয়করণ হতে যাচ্ছে। জাতীয়করণের জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ সারসংক্ষেপ তৈরি করেছে। প্রধানমন্ত্রীর চূড়ান্ত অনুমোদন নিতে আগামী সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে পাঠানো হবে বলে মন্ত্রণালয়ের সূত্র জানিয়েছে।

 

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সূত্র জানিয়েছে, রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলার বানেশ্বর কলেজ, দিনাজপুরের কাহারোল উপজেলার কাহারোল ডিগ্রি কলেজ ও খানসামা উপজেলার পাকের হাট ডিগ্রি কলেজ জাতীয়করণ করতে প্রধানমন্ত্রী সম্মতি দেন। পরবর্তীতে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের (মাউশি) কর্মকর্তারা সরেজমিন পরিদর্শন করে প্রতিবেদন দেয়। প্রতিষ্ঠান প্রধানরা কলেজের স্থাবর ও অস্থাবর সব সম্পত্তি দানপত্র দলিল (ডিড অব গিফট) মূলে সরকারের কাছে হস্তান্তর করেন। অর্থ বিভাগ থেকে সরকারি করণে অর্থ ছাড়েরর সম্মতি দিয়েছে। কিন্তু স্থানীয়ভাবে মামলার কারণে কলেজ তিনটি জাতীয়করণের সব কার্যক্রম স্থগিত ছিল। মামলা নিষ্পত্তি হওয়ায় জাতীয়করণের বাধা কেটে গেছে। জাতীয়করণে প্রধানমন্ত্রীর চূড়ান্ত অনুমোদন নিতে আগামী সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে পাঠানো হবে।

সূত্র আরও জানায়, ২৭১টি কলেজ জাতীয়করণের জন্য গত রবিবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে পাঠানো হয়েছে। সম্মতি পেলে এ সপ্তাহেই জিও (সরকারি আদেশ) জারি হতে পারে। তবে মামলার কারণে ৪৪টি কলেজ জাতীয়করণ আটকে আছে।

প্রসঙ্গত, প্রধানমন্ত্রী সরকারি কলেজবিহীন উপজেলায় একটি করে কলেজ সরকারি করার ঘোষণা দেন। প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী এসব কলেজ জাতীয়করণ করা হচ্ছে।

একই ধরনের আরও সংবাদ