অধিকার ও সত্যের পক্ষে

অ্যাক্রেডিটেশন কাউন্সিলে প্রথম চেয়ারম্যান নিয়োগ

 নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
অ্যাক্রেডিটেশন কাউন্সিলে প্রথম চেয়ারম্যান নিয়োগ পেয়েছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি অধ্যাপক মেসবাহ উদ্দিন আহমেদ। গত বুধবার রাষ্ট্রপতির নির্দেশে চার বছরের জন্য তিনি নিয়োগ পান। আইন প্রণয়নের দেড় বছর পর এই নিয়োগ দেওয়া হয়েছে বলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা এ তথ্য জানান।

 

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. সোহরাব হোসাইন বলেন, ‘গত বুধবার রাষ্ট্রপতি নির্দেশে অ্যাক্রেডিটেশন কাউন্সিলের প্রথম চেয়ারম্যান নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। শিগগির কাউন্সিলের অন্যান্য সদস্য নিয়োগ দেওয়া হবে।’

২০১৭ সালে পাশ হওয়া এই আইনের আওতায় দেশের ৩৮টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ও ৯৬টি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়কে স্বীকৃতি নিতে হবে। কাউন্সিল উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠান কর্তৃক প্রদত্ত উচ্চশিক্ষার গুণগতমান নিশ্চিত করতে কনফিডেন্স সার্টিফিকেট বা ক্ষেত্রমতো অ্যাক্রেডিটেশন সার্টিফিকেট প্রদান, স্থগিত বা বাতিল করবে।

আইনে বলা হয়েছে, সব উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অ্যাক্রেডিটেশন সার্টিফিকেট সবার অবগতির জন্য কাউন্সিলের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করতে হবে। অ্যাক্রেডিটেশন সনদ ছাড়া কোনও প্রতিষ্ঠান অ্যাক্রেডিটেশন প্রাপ্ত বলে প্রচার করতে পারবে না। আইনে উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো ফ্রেমওয়ার্ক দ্বারা নির্ধারিত প্রমিত মানের শিক্ষা কাঠামোর ব্যত্যয় ঘটিয়ে, স্বনির্ধারিত কোনও শিক্ষা কাঠামোর আলোকে ডিগ্রি দিতে পারবে না বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

আইন অনুযায়ী কাউন্সিলে একজন চেয়ারম্যান, চারজন পূর্ণকালীন ও আটজন খণ্ডকালীন সদস্য সমন্বয়ে কাউন্সিল গঠন করা হবে। অ্যাক্রেডিটেশন কাউন্সিল উচ্চশিক্ষার গুণগত মান নিশ্চিত, অ্যাকাডেমিক প্রোগ্রাম ও উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অভিস্বীকৃতি এবং এই আইনের আলোকে প্রয়োজনীয় বিধি ও প্রবিধিমালা প্রস্তুত করবে।

মেডিক্যাল, প্রকৌশলী, কৃষি, ব্যবসায়, আইনসহ প্রত্যেক ডিসিপ্লিনের জন্য আলাদা অ্যাক্রেডিটেশন কমিটি গঠন করবে। এই কমিটির গঠন ও কার্যাবলি বিধি মেনে পরিচালিত হবে।

একই ধরনের আরও সংবাদ