অধিকার ও সত্যের পক্ষে

জুমার নামাজের গুরুত্ব

 নিউজ ডেস্ক।।

সারা সপ্তাহ ঘুরে একদিন আসে শুক্রবার। মুসলমানদের প্রাত্যহিক জীবনে শুক্রবারের গুরুত্ব অপরিসীম। এ দিনকে মুসলিম সমাজে জুম্মার দিন বলে পরিচিত। এ দিনটি ইসলাম ধর্মে বিশেষ গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করা হয়। কারণ জুম্মার দিনে জোহরের নামাজের পরিবর্তে জুম্মার নামাজকে ফরজ করা হয়েছে।

জুমার দুই রাকাত ফরজ নামাজ ও ইমামের খুতবাকে জোহরের চার রাকাত ফরজ নামাজের স্থলাভিষিক্ত করা হয়েছে। সপ্তাহের এদিনে জুমার খতিব উম্মতের যাবতীয় প্রয়োজনীয় গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে কোরআন ও হাদিসের আলোকে নির্দেশনা ও সমাধানমূলক উপদেশ দেবেন তার খুতবায়।

 ইবনে মাসউদ (রা.) এ মর্মে হাদিস বর্ণনা করেছেন যে, রাসূলুল্লাহ (স.) যে সমস্ত লোক জুমার নামাজ থেকে দূরে থাকে (পড়ে না) তাদের সম্পর্কে বলেছেন, নিশ্চয়ই আমার ইচ্ছা হয় যে আমি কাউকে নামাজ পড়ানোর আদেশ করি, সে মানুষকে নামাজ পড়াক। অতঃপর যে সমস্ত লোক জুমার নামাজ পড়ে না, আমি তাদের ঘরবাড়ি জ্বালিয়ে দিই। (মুসলিম : ৬৫২, মুসনাদে আহমাদ : ৩৮১৬, মুসনাদে ইবনে আবি শাইবা : ৫৫৩৯, আসু-সুনানুল কুবরা : ৪৯৩৫)।

একই ধরনের আরও সংবাদ