অধিকার ও সত্যের পক্ষে

আগৈলঝাড়ায় বিএইচপি একাডেমী বিদ্যালয়ের মাঠে জলাবদ্ধতার কারণে ক্রীড়া চর্চা বন্ধ

 আগৈলঝাড়া প্রতিনিধি, বরিশাল।
“শিক্ষা জাতির মেরুদন্ড, খেলা-ধূলা জাতির মান দন্ড” এমন প্রবাদ থাকলেও বরিশালের আগৈলঝাড়ায় উপজেলা সদরে অবস্থিত ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপিঠ ভেগাই হালদার পাবলিক একাডেমী’র মাঠে দীর্ঘদিন যাবৎ বৃষ্টির পানি জমে থাকার কারনে ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ক্রীড়া চর্চা বন্ধ রয়েছে। এছারাও বিদ্যালয়ে নতুন ভবন তৈরি করায় ওই ভবন তৈরির মালামাল বিদ্যালয়ে মাঠে রাখার কারনেও শিক্ষার্থীদের ক্রীড়া চর্চা বন্ধ রয়েছে। বৃষ্টির পানি, ময়লা-আর্বজনা, ভবন তৈরির মালামাল রাখার কারনে বিদ্যালয়ের মাঠে হচ্ছেনা দৈনিক সমাবেশ ও জাতীয় সংঙ্গীত পরিবেশন।
স্কুলের বারান্দায় বা মাঠের শুকনা জায়গায় শিক্ষার্থীদের শরীর চর্চা ও শপথ বাক্য পাঠ, জাতীয় সংগীত পরিবেশন হলেও দীর্ঘদিনেও মাঠের জলাবদ্ধতা নিরশনে কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করেননি বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এ কারনে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অভিভাবকসহ শিক্ষার্থীরা। বিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, ১৯১৯ সালে মহাত্মা ভেগাই হালদার বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা করেন। বিদ্যালয়ে ৬ষ্ঠ থেকে ১০ম শ্রেণি পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের পাঠদান দেয়া হয়। বর্তমানে বিদ্যালয়টিতে প্রায় ৮০০ জন শিক্ষার্থী রয়েছে। তুলনামূলক বিদ্যালয়টির মাঠটি নীচু হওয়ায় এবং দীর্ঘদিনেও বিদ্যালয় মাঠটি সংস্কার না করার কারনে এ অবস্থায় পরিণত হয়েছে।
বিদ্যালয়ের এই মাঠটিই শিক্ষার্থীদের ক্রীড়া প্রতিযোগিতা বা ক্রীড়া চর্চা’র জন্য একমাত্র মাঠ। বিদ্যালয়টির অবকাঠামোগত উন্নয়ন সাধন হলেও নিচু রয়ে গেছে মাঠটি। ফলে একটু বৃষ্টি হলেই পানি জমে থাকে ওই মাঠে। এতে বছরের অধিকাংশ সময় ওই মাঠটিতে কাঁদা জমে থাকে। এতে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী এবং এলাকার ক্রীড়ামোদীদের ক্রীড়া চর্চায় প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি হয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ১০ম শ্রেণীর এক শিক্ষার্থী জানায়, আগে এ বিদ্যালয় মাঠে নিয়মিত ফুটবল, ভলিবল, ক্রিকেট ও কাবাডি খেলা হতো কিন্তু পানি জমে থাকার কারনে বন্ধ রয়েছে এসব খেলা-ধূলা।
বিদ্যালয়ের মাঠে কাঁদা-পানি জমে থাকায় বন্ধ রয়েছে শ্রেণি ভিত্তিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার আয়োজন, হয় না গুরুত্বপূর্ণ কোন ক্রীড়া প্রতিযোগিতা। খেলাধূলা ছাড়াও কাঁদা-পানির কারনে বিদ্যালয় মাঠে কোন প্রকার কাজে প্রবেশ করা যায় না। একদিকে যেমন মাঠে পানি জমে থাকার করনে শিক্ষার্থীদের ক্রীড়া চর্চা ব্যহত হচ্ছে অন্যদিকে দূষিত হচ্ছে বিদ্যালয়ের পরিবেশ। আগৈলঝাড়া শ্রীমতী মাতৃমঙ্গল বালিকা বিদ্যালয় ব্যাতীত মাধ্যমিক স্তরে উপজেলা সদরের একমাত্র বিদ্যালয়টিতে প্রশাসন ও বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় নিয়মিত খেলাধুলা করতে না পারায় শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছে।
এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক যতীন্দ্র নাথ মিস্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, বর্ষা মৌসুমে মাঠে পানি জমে খেলার বিঘ্ন হয়, এছাড়াও যত্রতত্র নির্মান সামগ্রী রাখায় মাঠের আগের পরিবেশ নেই বলেও জানান তিনি। তবে স্কুলের বারান্দায় বা মাঠের শুকনা জায়গায় শিক্ষার্থীদের শপথ বাক্য পাঠ ও জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হয়। চলতি মৌসুমে বঙ্গবন্ধু বঙ্গমাতা গোল্ড কাপ টুনামেন্ট এই বিদ্যালয় মাঠেই সল্প পরিসরে হয়েছে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশ্রাফ আহমেদ রাাসেল জানান, উল্লেখিত মাঠটি উপজেলা সদরের মাধ্যমিক স্তরের একমাত্র খেলার মাঠ। এখানে ম্যানেজিং কমিটির সদস্যদের আগেই দ্বায়িত্বশীল হওয়া উচিত ছিল। পাশাপাশি মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস ও স্থানীয় প্রশাসনের দ্বায়িত্ব পালনে এগিয়ে আসা উচিত ছিল, কিন্তু কেউ এগিয়ে আসেনি। বর্তমানে স্কুলে ম্যানেজিং কমিটি নেই। এডহক কমিটি অনুমোদন চেয়ে বোর্ডে প্রেরণ করা হয়েছে। পরবর্তী কমিটির সদস্যদের মাঠ সংস্কারের জন্য তিনি সকল প্রকার সাহায্য ও সহযোগীতা করার আশ্বাস দিয়ে পূর্বের মত আবার ওই মাঠে সকলের খেলার পরিবেশ ফিরিয়ে আনবেন বলেও জানান তিনি।
একই ধরনের আরও সংবাদ