অধিকার ও সত্যের পক্ষে

ইউরেশিয়া আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে গ্রান্ডপিক্স পুরস্কার পেয়েছে টুসির ‘মীনালাপ’

 বিনোদন ডেস্কঃ

৬ জুলাই শেষ হলো ১৪ তম ইউরেশিয়া আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব। এটি ইন্টারন্যাশনাল ফেডারেশন অফ ফিল্ম প্রডিউসার এ্যাসোসিয়েশন (FIAPF) স্বীকৃত এশিয়ার পূর্ণদৈর্ঘ্য এবং স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের সর্ববৃহৎ উৎসব। উৎসবের এবারের আসরে স্বল্পদৈর্ঘ্য বিভাগে গ্রান্ডপিক্স পুরস্কার পেয়েছে বাংলাদেশি নির্মাতা সুবর্ণা সেঁজুতি টুসি পরিচালিত স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘মীনালাপ’। এই প্রথম উপমহাদেশের কোন নির্মাতার চলচ্চিত্র এই উৎসবে পুরস্কৃত হলো।
২৮ মিনিট দৈর্ঘ্যের চলচ্চিত্র ‘মীনালাপ’ এর কাহিনী এগিয়েছে আশায় আবর্তিত শহুরে নিঃসঙ্গ জীবনের মুহূর্তগুলো নিয়ে। পশ্চিমবঙ্গের একটি প্রত্যন্ত গ্রাম থেকে পুনে শহরে আসা গার্মেন্টসে কর্মরত একটি বাঙালি দম্পতির অনাগত সন্তান ভূমিস্ট হওয়ার আগ মুহূর্তগুলো চলচ্চিত্রটিতে উঠে এসেছে।
ফিল্ম এন্ড টেলিভিশন ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়া এর প্রযোজনায় চলচ্চিত্রটির চিত্রনাট্য এবং পরিচালনা করেছেন সুবর্ণা সেঁজুতি টুসি। সুবর্ণা সেঁজুতি, সাংস্কৃতিক অঙ্গনে টুসি নামেই বেশি পরিচিত। ছোটবেলা থেকে জড়িত ছিলেন মঞ্চনাটকের সঙ্গে। সাংবাদিকতা করেছেন। টেলিভিশনের অনুষ্ঠান উপস্থাপনা আর গ্রন্থনার কাজ করেছেন। তিনি নাটক ও চলচ্চিত্রের স্ক্রিপ্ট লিখেছেন। বাংলাদেশে পড়াশোনা করেছেন অর্থনীতি বিষয়ে। ভারতে পুনে ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়া থেকে ফিল্ম ডিরেকশন ও স্ক্রিপ্ট রাইটিংয়ের ওপর পোস্ট গ্র্যাজুয়েট ডিপ্লোমা করেছেন।

উল্লেখ্য যে, সেঁজুতি টুসি বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ নেতা, কবি ও সাহিত্যিক ড.নূহ-উল-আলম লেনিন এর জেষ্ঠ কন্যা ।

একই ধরনের আরও সংবাদ