অধিকার ও সত্যের পথে

অপহরণের ৩ দিন পর ছাত্রের লাশ উদ্ধার

 জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক ॥

নোয়াখালীর সুবর্নচর উপজেলায় অপহরণের ৩ দিন পর এক ছাত্রের লাশ উদ্ধার করেছে চরজব্বর থানা পুলিশ।

মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে উপজেলার চরবাটা ইউনিয়নের মধ্য চরবাটা গ্রামের সুজা মাঝির বাড়ির পেছনের একটি ডোবা থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

নিহত কামরুল ইসলাম সাগর (১৮) ওই গ্রামের নুরুল ইসলাম ফরেস্টারের ছেলে। সে এ বছর স্থানীয় চরবাটা খাসের হাট উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পাশ করেছে। সুবর্ণচর উপজেলার সৈকত ডিগ্রি কলেজে উচ্চ মাধ্যমিক শ্রেণিতে ভর্তির জন্য আবেদন করেছে সাগর।

চরজব্বর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নিজাম উদ্দিন জানান, গত শুক্রবার রাত থেকে সাগরের খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। পরে এ ঘটনায় সাগরের বড় ভাই নজরুল ইসলাম বাদি হয়ে শনিবার রাতে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মঙ্গলবার সকালে চরবাটা গ্রামের একটি ডোবায় সাগরের ভাসমান লাশ দেখতে পায় স্থানীয় লোকজন। পরে স্থানীয় লোকজন চরজব্বর থানা পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে সকালে মমতাজ বেগম (১৯) ও হাসিনা আক্তার (৪০) নামে দুই নারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এছাড়াও মিঠু চন্দ্র দাস (২৪) নামের একজনকে আটক করে থানায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

একই ধরনের আরও সংবাদ