অধিকার ও সত্যের পথে

বেতন বোনাসের দাবিতে কলেজে তালা দিল শতাধিক শিক্ষক-কর্মচারী

 নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ 

পাবনা শহীদ এম মনসুর আলী কলেজের দেড় শতাধিক শিক্ষক-কর্মচারী বেতন বোনাসের দাবিতে কলেজের তালা ঝুলিয়ে বিক্ষোভ প্রর্দশন, কর্মবিরতি ও মানববন্ধন করেছেন।

মঙ্গলবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত এ সকল কর্মসূচি পালন করেন শিক্ষক-কর্মচারীরা।

বিক্ষুদ্ধ শিক্ষক-কর্মচারীদের অভিযোগ, কলেজ পরিচালনা কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন ধরে অসন্তোষ চলে আসছিল। সম্প্রতি স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম কলেজের এডহক কমিটি গঠনে তার মনোনীত ব্যক্তিদের দিয়ে করার পরামর্শ দেন। কিন্তু অজ্ঞাত কারণে কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ আব্দুস সামাদ খান তার মনোনীত ব্যক্তিদের দিয়ে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সংশ্লিষ্টদের অনৈতিকভাবে ম্যানেজ করে পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদন করে আনেন।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, এই কমিটি অনুমোদনের পর কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুস সামাদ খানের ওপর অসন্তোষ্ট হন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। মন্ত্রী কমিটি অনুমোদনের পরপরই কলেজ পরিচালনা কমিটির সভাপতি ইদ্রিস আলী বিশ্বাসকে সকল কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার পরামর্শ দেন বলে জানা যায়। এ ঘটনায় ওই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রায় দেড় শতাধিক শিক্ষক-কর্মচারী তিন মাস ধরে বেতন পাচ্ছেন না। একইসঙ্গে আসন্ন ঈদ-উল-ফিতরের বোনাসও বন্ধ রয়েছে।

বিক্ষুদ্ধ শিক্ষকরা বলেন, এই জুন মাসে বেতন বিলে স্বাক্ষর না হলে তিন মাসের বেতন ফেরত চলে যাবে।

এ ব্যাপারে শিক্ষক প্রতিনিধি গোলাম মোস্তফা জালাল বলেন, বেতন বোনাসের জন্য বার বার অধ্যক্ষকে চাপ দেয়া হলেও অধ্যক্ষ শিক্ষক-কর্মচারীদের বেতন ভাতা প্রদানের ব্যাপারে কার্যকর কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করেন নি। এ বিষয়ে সভাপতির সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি দেব, দিচ্ছি বলে সময় ক্ষেপণ করছেন বলেও অভিযোগ তাদের।

কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ আব্দুস সামাদ খানের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি এ ব্যাপারে কোন কথা বলতে রাজি নন বলে ফোন কেটে দেন। কলেজের সভাপতি ইদ্রিস আলী বিশ্বাসের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি মুঠোফোন রিসিভ করেন নি।

একই ধরনের আরও সংবাদ