অধিকার ও সত্যের পক্ষে

উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে নানা অনিয়মের অভিযোগ শিক্ষকদের!

 নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ 

রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা নুর-উন-নাহার রুবিনার বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ এনে তার অপসারণ দাবি করেছেন স্থানীয় শিক্ষকরা। অনিয়মের অভিযোগ তোলায় শিক্ষকদের কারণ দর্শানোর নোটিস দিয়েছেন শিক্ষা অফিসার। ফলে শিক্ষকদের মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে।

বর্তমান শিক্ষা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অনিয়ম, দুর্নীতির অভিযোগ তুলে গত বৃহস্পতিবার (২৪ মে) সকাল ১১টায় উপজেলা পরিষদের হলরুমে তার অপসারণ দাবি জানিয়েছে শিক্ষকরা। শিক্ষকদের এক প্রতিবাদ সভায় অবিলম্বে শিক্ষা কর্মকর্তাকে অপসারণ করা না হলে কঠোর আন্দোলনের কর্মসূচি দেয়া হবে বলে জানানো হয়। পরে এই প্রতিবাদ সভা করার জন্য উপজেলার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষককে শোকজ করেন এই শিক্ষা কর্মকর্তা।

শিক্ষকদের দাবী, এই শিক্ষা কর্মকর্তা বদলির নামে ঘুষ, অনিয়ম ও দুর্নীতির সঙ্গে জড়িয়ে পড়েছেন। অফিসে কাজে আসা শিক্ষকদের সঙ্গে খারাপ আচরণ ও হুমকি-ধমকি দিয়ে থাকেন শিক্ষা কর্মকর্তা। অফিসে সঠিক সময়ে না আসার কারণে শিক্ষকেরা হয়রানির শিকার হন। আর এ সমস্ত কারণে শিক্ষকদের তোপের মুখে পড়ার ভয়ে গত ৩ মাস ধরে প্রধান শিক্ষকদের মাসিক সভায় উপস্থিত হননি শিক্ষা কর্মকর্তা। ১৬৫টি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকরা সারাদিন অপেক্ষা করার পর ১৬ মে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ করেন। এরপর শিক্ষা কর্মকর্তা ১৭ মে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও হরিশংকরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাবিয়ার রহমানকে কারণ দর্শানোর নোটিস প্রদান করেন। নোটিসের বিষয়টি অন্য শিক্ষকদের মাঝে ছড়িয়ে পড়লে শিক্ষকরা ২৪ মে প্রতিবাদ সমাবেশ করে। মাদারপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আজহার আলী শিক্ষা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে দুর্নীতি, অনিয়ম ও ঘুষের অভিযোগে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রীসহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

এদিকে, অভিযোগ প্রসঙ্গে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার নূর-উন-নাহার রুবিনার সাথে জানতে চাইলে তিনি বলেন,আপনাকে এত কৈফিয়ত দিতে আসেনি। আপনি কি অফিসের লোক বা কোন কর্মকর্তা। আমি অফিসে কীভাবে আসবো কীভাবে যাব এটা আমার ব্যাপার আপনি কে? যে সকল অভিযোগ আমার বিরুদ্ধে আনা হয়েছে তা আমার জানা নাই। ক্ষুব্ধ হয়ে তিনি বলেন, আপনাকে আমি এত কিছু জানাতে চাচ্ছিনা কোন কথা বলতে চাচ্ছি না।

একই ধরনের আরও সংবাদ