অধিকার ও সত্যের পক্ষে

তিউনিশিয়ার উপকূলে নৌকা ডুবে নিহত-৪৬

 আন্তর্জাতিক ডেস্ক ॥ 

উত্তর আফ্রিকার দেশ তিউনিশিয়ার উপকূলে এক নৌকাডুবির ঘটনায় অন্তত ৪৬ অভিবাসীর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় ৬৭ জনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে এবং নিখোঁজ রয়েছে আরো বহু মানুষ।

তিউনিশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় রোববার জানিয়েছে, ভূমধ্যসাগরে ডুবে যাওয়া নৌকাটিতে ১৮০ জন যাত্রী ছিল যাদের মধ্যে ১০০ জন ছিল তিউনিশিয়ার এবং বাকি ৮০ জন ছিল আফ্রিকার অন্যান্য দেশের নাগরিক।

ভূমধ্যসাগরের আশপাশের দেশগুলো সাম্প্রতিক সময়ে অভিবাসীদের ইউরোপ যাত্রা নিয়ে যে সংকটের মধ্যে রয়েছে রোববারের এ ঘটনা তার সর্বশেষ সংযোজন। রোববারই তুরস্কের দক্ষিণাঞ্চলীয় আনতালিয়া প্রদেশের কাছে ১৫ অভিবাসীবাহী একটি স্পিটবোট ডুবে গেলে ছয় শিশুসহ নয় ব্যক্তি নিহত হয়।

ইন্টারন্যাশনাল অরগানাইজেশন ফর মাইগ্রেশনের এক হিসাব অনুযায়ী, চলতি বছরের শুরু থেকে এ পর্যন্ত ইউরোপ অভিমুখে যাওয়ার সময় ভূমধ্যসাগরে ডুবে প্রায় ৬৬০ অভিবাসীর মৃত্যু হয়েছে। ইতালির দক্ষিণ উপকূলে পৌঁছার লক্ষ্যে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দেয়ার জন্য তিউনিশিয়াকে ব্যাপকভাবে ব্যবহার করেন আফ্রিকান অভিবাসীরা। নিরাপত্তা কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, নৌকাটিতে প্রায় ১৮০ জন অভিবাসন প্রত্যাশী ছিল, তাদের মধ্যে ৮০ জন আফ্রিকার অন্যান্য দেশের না

গরিক। রোববার রাতে উদ্ধার অভিযান স্থগিত করার পর সোমবার সকালে আবার শুরু করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা।
বেঁচে যাওয়া এক অভিবাসন প্রত্যাশী জানিয়েছে, নৌকাটি ডুবতে শুরু করার পর কোস্টগার্ডের হাতে গ্রেফতার এড়াতে ক্যাপ্টেন নৌকা ফেলে পালিয়ে যান।

একই ধরনের আরও সংবাদ