অধিকার ও সত্যের পক্ষে

জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক মোস্তফা কামালের জন্মদিন আজ

 শিক্ষাবার্তা সাহিত্য ডেস্কঃ

কথাসাহিত্যিক ও সাংবাদিক মোস্তফা কামালের জন্মদিন আজ। তার জন্ম বরিশালের আন্ধার মানিক গ্রামে। সেখানেই কাটে শৈশব ও কৈশোর। উচ্চশিক্ষা ইংরেজি সাহিত্য ও রাষ্ট্রবিজ্ঞানে। দেশের অন্যতম জনপ্রিয় এই সাহিত্যিক-সাংবাদিক আড়াই দশকের বেশি সময় ধরে নিয়মিত লিখছেন। সাহিত্যের প্রায় সব শাখাতেই রয়েছে তার অবাধ বিচরণ। তার প্রথম প্রকাশিত ছড়া ‘মেঘনা’। প্রথম উপন্যাস ‘পাপের উত্তরাধিকার’। প্রথম গল্প “বীরাঙ্গনার লড়াই’ । প্রথম কিশোর উপন্যাস “ভিনদেশি গোয়েন্দা’, প্রথম সায়েন্স ফিকশন ‘ক্লোনমামা’, প্রথম শিশুতোষ বই ‘পাগলাভূত’। প্রথম বিদ্রুপ ও রম্য বই ‘পাগল ছাগল ও গাধাসমগ্র’। প্রথম নাটক ‘প্রতীক্ষার শেষ প্রহর’, প্রথম গবেষণামূলক বই ‘আসাদ থেকে গণঅভ্যুত্থান’। বর্তমানে তিনি কালের কণ্ঠের নির্বাহী সম্পাদক হিসেবে কর্মরত। তার অবসর কাটে বই পড়ে, গান শুনে। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি বিবাহিত ও দুই সন্তানের জনক।

 ‘সাংবাদিকতা পেশার ব্যস্ততার মধ্যে যাঁরা সৃষ্টিশীল কাজের ধারা বজায় রাখতে পেরেছেন তাঁদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলেন মোস্তফা কামাল। প্রতিবছর অমর একুশে গ্রন্থমেলায় তাঁর একাধিক বই প্রকাশিত হয়। তিনি ২৫ বছর ধরে গল্প, উপন্যাস, প্রবন্ধ-নিবন্ধ, সায়েন্স ফিকশন, টিভি নাটক এবং শিশু-কিশোর উপযোগী রচনার নিয়মিত লেখক। তিনি ৯০টিরও অধিক গ্রন্থের রচয়িতা।’ 

সাংবাদিকতা পেশার ব্যস্ততার মধ্যে যাঁরা সৃষ্টিশীল কাজের ধারা বজায় রাখতে পেরেছেন তাঁদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলেন মোস্তফা কামাল। প্রতিবছর অমর একুশে গ্রন্থমেলায় তাঁর একাধিক বই প্রকাশিত হয়। তিনি ২৫ বছর ধরে গল্প, উপন্যাস, প্রবন্ধ-নিবন্ধ, সায়েন্স ফিকশন, টিভি নাটক এবং শিশু-কিশোর উপযোগী রচনার নিয়মিত লেখক। তিনি ৯০টিরও অধিক গ্রন্থের রচয়িতা।

কলামিস্ট হিসেবে ব্যাপক জনপ্রিয়তাও রয়েছে তাঁর। ২০১৮ সালে বইমেলায় প্রকাশিত তাঁর ‘অগ্নিপুরুষ’ একটি ঐতিহাসিক উপন্যাস। এছাড়া ২০১৭ সালের বইমেলায় প্রকাশিত হয় তাঁর আরও একটি ঐতিহাসিক উপন্যাস ‘অগ্নিকন্যা’।

অন্যদিকে নানা ধরনের কিশোর উপন্যাস লিখে মোস্তফা কামাল ইতোমধ্যে ব্যাপক পরিচিতি অর্জন করেছেন। এ ধরনের একটি গ্রন্থ ‘ডাকাতের কবলে ফটকুমামা’। মোস্তফা কামালের রঙ্গব্যঙ্গ সিরিজ বেশ জনপ্রিয়। প্রকাশিত হয়েছে ‘পাগলছাগল ও গাধাসমগ্র-৯’। আর সায়েন্স ফিকশন ‘বিমান রহস্য’ এবং ‘হাসির চার উপন্যাস’ সংকলনও দৃষ্টিনন্দন।

এছাড়া কলকাতা থেকে প্রকাশিত হয়েছে ৬টি সায়েন্স ফিকশন ও ৫টি গোয়েন্দা উপন্যাসের সংকলন নিয়ে মোস্তফা কামালের আরো দুটি গ্রন্থ। মোস্তফা কামালের ‘জননী’ উপন্যাসটি ইতোমধ্যে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। ২০১১ সালের তাঁর মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক উপন্যাস ‘জনক জননীর গল্প’ প্রকাশিত হয়। এসব গ্রন্থের আগেও তিনি ‘সিরিয়াস’ ধারার উপন্যাস রচনায় দক্ষতার পরিচয় দিয়েছেন। ‘বারুদ পোড়া সন্ধ্যা’(২০০৫), ‘হ্যালো কর্নেল’(২০১০) তার মধ্যে পাঠকের মনোযোগ আকৃষ্ট করেছে। এরপর তিনি লিখেছেন ‘জিনাত সুন্দরী ও মন্ত্রী কাহিনী’ (২০১২), ‘কবি ও একজন নর্তকী’(২০১৩) প্রভৃতি উপন্যাসের বাস্তবধর্মী কাহিনী। অন্যদিকে তাঁর সংকলনগ্রন্থ ‘সায়েন্স ফিকশন সমগ্র’, ‘চার জয়িতা’, ‘চার অপরূপা’ এবং গবেষণাগ্রন্থ ‘আসাদ থেকে গণঅভ্যুত্থান’(১৯৯৩) খ্যাতি অর্জন করেছে।

একই ধরনের আরও সংবাদ