অধিকার ও সত্যের পথে

এক উপজেলাতেই ৬৪ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নেই প্রধান শিক্ষক

 জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক ॥

টাঙ্গাইল জেলার মির্জাপুর উপজেলার ৬৪টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বিগত ৬ মাস ধরে প্রধান শিক্ষকের পদ শূন্য রয়েছে। এতে পাঠদানসহ প্রশাসনিক কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে বলে জানা গেছে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস সূত্রে।

জানা যায় , মির্জাপুর উপজেলায় ১৭০টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে। এরমধ্যে ৬৪টি বিদ্যালয়ে পর্যায়ক্রমে গত ৬ মাস ধরে প্রধান শিক্ষকের পদ শূন্য রয়েছে। এতে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের লেখাপড়া সহ প্রশাসনিক কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে।

প্রধান শিক্ষক বিহীন বিদ্যালয় গুলো হল পেকুয়া, উফুলকি, আটিয়া মামুদপুর, কলিমাজানী, বানাইল, বাঙ্গুরী, নামদারপুর, টি নয়াপাড়া, ঝোপবাড়ি, অভিরামপুর, পাচগাও, বংশীনগর, বাঁশতৈল, গায়রাবেতিল, পলাশতলি, পাথালিয়াপাড়া, হাড়িয়া, কামারপাড়া, বরদাম, সোহরাবনগর, আমড়াইল তেলিপাড়া, থলপাড়া, নতুন কহেলা, বন্দ্যে কাওয়ালজানী, খৈলসিন্দুর, তরফপুর, গাজেশ্বরী, নওগাও, আন্দিপাড়া, আমড়াতৈল, সিবিএ, সেহরাতৈল, চৌবাড়িয়া, মজিদপুর, কহেলা, সৈয়দপুর, ঘাগরাই, খুইদারচালা, কটামারা, পাকুল্যা, মারিশন, আউশাচালা, কাহারতা, বরচালা, হরতকীচালা, আগচামড়ী, নিলজা, দিঘুলিয়া, সতানরী, তরফপুর, মৈশামুড়া, হালুয়াপাড়া, মির্জাপুর ক্যাডেট কলেজ, ছলিমনগর, ঘাগড়াই দক্ষিণ, দাতপাড়া, বংখুরী, গোড়াকী, বুড়িহাটী, পানিশাইল, বহনতলী, কুড়িপাড়া মধুরটেকি, নিশ্চিন্তপুর, রহিমপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়।

মির্জাপুর উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো. খলিলুর রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে অবসর ও বদলি জনিত কারণে বিদ্যালয়গুলোতে প্রধান শিক্ষক শূন্য রয়েছে উল্লেখ করে শিক্ষা বার্তা ডট কম কে বলেন, শূন্য পদ গুলো পূরণের জন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। তাছাড়া সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকদের চলতি দায়িত্ব দিয়ে প্রধান শিক্ষকের পদ পূরণ করার প্রক্রিয়াটি চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে বলে তিনি জানান।

একই ধরনের আরও সংবাদ