অধিকার ও সত্যের পক্ষে

৪৭ বছর পরেও আমি স্বাধীনতাটাকে খুঁজছি

 এ এইচ এম সায়েদুজ্জামানঃ

বাংলাদেশ আজ ৪৭ বছর  স্বাধীন হয়েছে। স্বাধীনতা একটি জাতির জন্য বিরাট গৌরবের। ছাত্র-শিক্ষক, সাংবাদিক-সাহিত্যিক, আলেম-উলামা, কৃষক-শ্রমিক, জেলে-তাঁতী,  বুদ্ধিজীবীসহ সকল শ্রেণী-পেশার মানুষের আত্ম-ত্যাগের বিনিময়ে আমরা পেয়েছি বাংলাদেশ । ১৯৭১ সালের ১৬ ই ডিসেম্বর রক্তক্ষয়ী সংগ্রামের মাধ্যমে আমারা লাভ করি মহান বিজয়। যেখানে ভারত চল্লিশ বছরে, ভিয়েতনাম  ২৬ বছরে,  আলজেরিয়া ৯ বছরে আর ইরিত্রিয়া আজও পারেনি। আর আমরা বাঙ্গালী মাত্র নয় মাসের সংগ্রামে  স্বাধীনতা  অর্জন করি। এটা  বিশ্বের ইতিহাসেও বিরল। সুতরাং অনেক ত্যাগের বিনিময়ে পাওয়া এই স্বাধীনতা আমাদের জন্য গৌরব ও অহংকারের।

স্বাধীনতা মানে আমার কথা বলার অধিকার, স্বাধীনতা মানে আমার মা-বোনের জান-মাল, ইজ্জত, আব্রুর নিরাপত্তা। স্বাধীনতা মানে আমার পরাধীনতার বেড়াজাল থেকে মুক্তি। স্বাধীনতা মানে আমার ছোট্ট একটি সংবিধান। স্বাধীনতা মানে আমার, স্বাধীনতা সার্বভৌমত্বের গ্যারান্টি।

আজ মানুষের জান-মাল, ইজ্জত, আব্রুর  নিরাপত্তা কতটুকু। কিন্তু কেন? আমার দেশের প্রতিটি নাগরিকের রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক, ধর্মীয় স্বাধীনতা আমার সাংবিধানিক অধিকার, কোন দল বা গোষ্ঠীর করুণা কিংবা দয়া নয়!। এটা আমার অধিকার। একটি জাতির আত্মনির্ভর হওয়ার জন্য সাতচল্লিশ বছর কম সময় নয়।

আমরা কি এমন বাংলাদেশ চেয়েছিলাম? দু’মুঠো খাবারের জন্য মা তার সন্তান বিক্রির খবর আসে এখনো পত্রিকার পাতায়, এটি জাতির জন্য লজ্জাকর। আকাশে-বাতাসে আজ লাশ আর বারুদের গন্ধ। রাস্তা-ঘাট, বনে-জঙ্গলে, ডোবা-নালায়, নদীতে প্রতিদিন পাওয়া যাচ্ছে পৃথিবীর সর্বশ্রেষ্ঠ জীব আশরাফুল মাখলুকাতের মৃতদেহ। চারিদিকে শুধু ধর্ষনের আর্তনাদ। ২ বছরের শিশু থেকে শুরু করে ৭০ বছরের বৃদ্ধা। ক্রসফায়ারে  ঝড়ে পড়ছে  তাজা প্রাণ।  আজীবনের জন্য নিভে যাচ্ছে কোন উজ্জল প্রদীপ! এটি কোন সভ্য সমাজে কল্পনা করা যায় না। এ যেন কোন মায়ের নাড়ী ছেঁড়া সন্তানের বুকে গুলি ঝাঁজরা করা মৃত লাশের খবর!। কোন স্ত্রীর বিধবা হওয়ার এক মহা-দুঃসংবাদ। এতিম সন্তানেরা পৃথিবীতে বাবা বলে আর কাউকে ডাকতে না পারার পরিসমাপ্তি। এর কোন জবাব আছে কি  ? আমরা কি এমন বাংলাদেশ চেয়েছিলাম?

তাই স্বাধীনতার ৪৭ বছরের সিঁড়িতে দাঁড়িয়ে সন্তানহারা মায়ের ক্রন্দন,স্বামীহারা বিধবা স্ত্রীর করুণ চাহনী, এতিম শিশুর অবোলা কান্না, মজলুমের গগণবিদারী আর্তনাদে বাংলার আকাশ বাতাস প্রকম্পিত! তাইতো জনপ্রিয় শিল্পী হায়দারের গানের কন্ঠে সুর মিলিয়ে বলছি- কি দেখার কথা কি দেখছি?
কি শোনার কথা কি শুনছি?
কি ভাবার কথা কি ভাবছি?
কি বলার কথা কি বলছি?
সাতচল্লিশ বছর পরেও আমি স্বাধীনতাটাকে খুঁজছি!!

লেখক- শিক্ষক ও সাংবাদিক।

একই ধরনের আরও সংবাদ