অধিকার ও সত্যের পথে

আজকের দিনে বিশ্বব্যাপী ঘটে যাওয়া ঘটনাবলী

 এম এস হক

আজ রবিবার ১৪ জানুয়ারি ২০১৮, ০১ মাঘ ১৪২৪, আজকের এই দিনে বিশ্বব্যাপী ঘটে যাওয়া কিছু ঘটনাবলীঃ

ইতিহাসঃ

১৬৩৯-মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সংবিধান গৃহীত হয়।

 ১৭৬১-মারাঠা শক্তি ও আহমদ শাহ দুররানির মধ্যে তৃতীয় পানিপথের যুদ্ধ হয়।

১৯১৪-প্রথম ভারতীয় বিজ্ঞান কংগ্রেসের অধিবেশন শুরু হয়।

১৯৪৩-মরক্কোর ক্লাসাব্লাকা শহরে বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী উইন্সটনচার্চিল এবং যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ফ্রাংকলিন ডি. রুজভেল্ট বৈঠকেবসেছিলেন।

১৯৬৯-পূর্ববাংলায় (পূর্ব পাকিস্তান) ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের ১১ দফা কর্মসূচি গৃহীত হয়।

১৯৬৯-ভারতের মাদ্রাজ রাজ্যের নতুন নামকরণ করা হয় তামিলনাড়ু।

১৯৮০-জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদ আফগানিস্তানে আগ্রাসন চালানোর জন্যঅধুনালুপ্ত সোভিয়েত ইউনিয়নের বিরুদ্ধে নিন্দা প্রস্তাব গ্রহণ করেছিল।

১৯৯১-ইসরাইলের কুখ্যাত গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদের গুপ্তচরদের হাতেপ্রাণ হারান পিএলও শীর্ষ স্থানীয় নেতা আবু আয়াদ সহ অপর তিন নেতা।

২০০৮-নাসার পাঠানো ম্যাসেনজার নামের মহাকাশযান প্রথম বুধ গ্রহের অদেখা গোলাধের্র ছবি তুলতে সক্ষম হয়।

আজকের দিনে যাদের জন্মঃ

১৫৫১-মোগল যুগের শ্রেষ্ঠ ঐতিহাসিক ও পন্ডিত শেখ আবুল ফজল।

১৮৬১-ষষ্ঠ মুহাম্মদ, উসমানীয় খলিফা এবং সর্বশেষ উসমানীয় সুলতান।

১৮৭৫-ফরাসি খ্যাতিমান চিকিৎসক এবং সঙ্গীতবিদ আলবার্ট সোয়েৎজার।

১৯০৩-ঐতিহাসিক ড. নীহাররঞ্জন রায়ের।

১৯২৫-জাপানি ঔপন্যাসিক ও নাট্যকার ইউকিও মিশিমার জন্ম।

১৯২৬-মহাশ্বেতা দেবী, ভারতীয় বাঙালি সাহিত্যিক ও মানবাধিকার আন্দোলনকর্মী,(জন্ম ১৪ জানুয়ারি, ১৯২৬ – মৃত্যু ২৮ জুলাই, ২০১৬)ছিলেন একজন ভারতীয় বাঙালি কথাসাহিত্যিক ও মানবাধিকার আন্দোলনকর্মী।তাঁর উল্লেখযোগ্য রচনাগুলি হল হাজার চুরাশির মা, রুদালি, অরণ্যের অধিকার ইত্যাদি।মহাশ্বেতা দেবী ভারতের পশ্চিমবঙ্গ, বিহার, মধ্যপ্রদেশ ও ছত্তীসগঢ় রাজ্যের আদিবাসী উপজাতিগুলির অধিকার ও ক্ষমতায়নের জন্য কাজ করেছিলেন।তিনি সাহিত্য একাডেমী পুরস্কার (বাংলায়), জ্ঞানপীঠ পুরস্কার ও র‍্যামন ম্যাগসাইসাই পুরস্কার সহ একাধিক সাহিত্য পুরস্কার এবং ভারতের চতুর্থ ও দ্বিতীয় সর্বোচ্চ অসামরিক সম্মান যথাক্রমে পদ্মশ্রী ও পদ্মবিভূষণ লাভ করেন। পশ্চিমবঙ্গ সরকার তাঁকে পশ্চিমবঙ্গের সর্বোচ্চ অসামরিক সম্মান বঙ্গবিভূষণে ভূষিত করেছিল।

১৯২৯-সঙ্গীতশিল্পী ও সুরকার শ্যামল মিত্রের ।

আজকের দিনে যাদের মৃত্যুঃ

১৮৯৮-লুইস ক্যারল, হাস্যরস শিল্পী ও শিশুসাহিত্যিক।

১৯০৭-জামাইকায় ভূকম্পনে কিংস্টন বিধ্বস্ত ও এক হাজার নিহত হয়।

১৯৭৮-কুর্ট গ্যডল, মার্কিন যুক্তিবিদ, গণিতবিদ।

২০০৮-সেলিম আল দীন, বাংলাদেশী নাট্যকার, তিনি ১৯৪৯ সালের ১৮ই আগস্ট ফেনীর সোনাগাজী থানার সেনেরখিল গ্রামে জন্মগ্রহণ করেছিলে্র। মফিজউদ্দিন আহমেদ ও ফিরোজা খাতুনের তৃতীয় সন্তান তিনি ৷ শৈশব ও কৈশোর কেটেছে ফেনী, চট্টগ্রাম, সিলেট, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও রংপুরের বিভিন্ন স্থানে ৷ বাবার চাকরির সূত্রে এসব জায়গার বিভিন্ন স্কুলে পড়াশোনা করেছেন তিনি ৷ সেলিম আল দীন ১৯৬৪ সালে ফেনীর সেনেরখিলের মঙ্গলকান্দি মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পাস করেন। ১৯৬৬ সালে ফেনী কলেজ থেকে এইচএসসি ৷ ১৯৬৭ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগে ভর্তি হন ৷ দ্বিতীয় বর্ষে পড়ার সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছেড়ে গিয়ে ভর্তি হন টাঙ্গাইলের করোটিয়ায় সাদত কলেজে ৷ সেখান থেকে স্নাতক পাসের পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগ থেকে এমএ ডিগ্রি লাভ করেন। ১৯৯৫ সালে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মধ্যযুগীয় বাংলা সাহিত্যে নাটক এর উপর গবেষণা করে পিএইচডি ডিগ্রি লাভ করেন সেলিম আল দীন।তিনি ২০০৮ সালের ১৪ জানুয়ারি ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে কেন্দ্রীয় মসজিদের কাছে তাঁকে সমাহিত করা হয়।

একই ধরনের আরও সংবাদ