অধিকার ও সত্যের পথে

প্রশ্নফাঁস বড় কেলেঙ্কারি : শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী

শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী বলেছেন, শিক্ষা ব্যবস্থায় বর্তমানে প্রশ্নফাঁস একটি বড় কেলেঙ্কারি। এটি থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। আগামী বছর থেকে যাতে আর কোনোভাবে প্রশ্নফাঁস না হয় সেদিকে নজর রাখতে হবে।

প্রশ্ন ফাঁস রোধ আর কারিগরি শিক্ষাকে আধুনিকায়ন করার অঙ্গীকার করলেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নব নিযুক্ত প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী।

আজ রোববার মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগে নিয়োগপ্রাপ্ত প্রতিমন্ত্রীর সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি এমন প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

এ সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। নবনিয়ুক্ত প্রতিমন্ত্রীকে ফুলের তোড়া দিয়ে শুভেচ্ছা জানান শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন দপ্তর-সংস্থার প্রধানগণ।

অনুষ্ঠানে মন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, প্রশ্নপত্র ফাঁস ঠেকাতে সব ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। এজন্য শিক্ষক-অভিভাবকদের সচেতনতা ও দায়িত্ববোধ আরো বাড়াতে হবে।

প্রশ্ন ফাঁসরোধের ব্যাপারে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এটা কোনোভাবে সহ্য করব না। এ ব্যাপারে কোনো আপোষ করা হবে না।

কেরামত আলী বলেন, কারিগরি শিক্ষা দেশের মূল চালিকা শক্তি। এটিকে ঢেলে সাজাতে হবে। বেকারমুক্ত করতে কারিগরি শিক্ষার্থীরা পাস করে বেরিয়ে যাওয়ার আগেই একটি ট্রেডের উপর প্রশিক্ষণ দিতে হবে। এ শিক্ষা ব্যবস্থাকে ডিজিটালাইজ করতে হবে। এ লক্ষ্য কাজ করতে হবে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, নন-এমপিও শিক্ষকদের এমপিওভুক্তি করতে প্রধানমন্ত্রী সম্মতি দিয়েছেন। পর্যায়ক্রমে তা বাস্তবায়ন করা হবে। মন্ত্রণালয়কে আরো স্বচ্ছ ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে সবারর সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

দুর্নীতির ব্যাপারে জিরো টলারেন্স নীতির উল্লেখ করে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, পরিদর্শন ও নিরীক্ষা অধিদপ্তরকে আধুনিকায়ন করা হয়েছে। দুর্নীতির মুলোচ্ছেদ করার যে উদ্যোগ নেয়া হয়েছে, তা অব্যাহত থাকবে। দুর্নীতির বিরুদ্ধে আমাদের অবস্থান দৃঢ়।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের শিক্ষামন্ত্রী বলেন, নতুন মন্ত্রীকে বরণ করতে আজ এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। শিক্ষা ব্যবস্থাকে আরো এগিয়ে নিতে আমরা উভয়ে সমন্বয় করে কাজ করব। শিক্ষা মন্ত্রণালয় একটি বড় মন্ত্রণালয়। এখানে কাজের পরিমাণ অনেক বেশি। এ কারণে শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে দু’ভাবে ভাগ করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের সচিব জনবল ও রুম সংকট তুলে ধরেন। অনুষ্ঠান শেষে স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদরাসা শিক্ষক সমিতির সব দাবি-দাওয়া সম্বলিত একটি স্বারকলিপি গ্রহণ করেন প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী।
কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের সচিব মোঃ আলমগীর হোসেনের সভাপতিত্বে এ সময় উভয় মন্ত্রণালয় ও অধিনস্থ বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা, শিক্ষকরা উপস্থিত ছিলেন।

একই ধরনের আরও সংবাদ