অধিকার ও সত্যের পক্ষে

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে চলছে প্রাথমিক শিক্ষকদের অনশন

 নিজস্ব প্রতিনিধি:

 

আজ ২৩ ডিসেম্বর ভোর থেকে প্রাথমিকের সহকারী শিক্ষকরা দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে দলে দলে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে অনশনের জন্য জমায়েত হচ্ছেন। তাদের দাবী প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের একধাপ নিচে বেতন নির্ধারন করতে হবে।

জানা যায় স্বাধীনতার পর প্রাথমিকের প্রধান ও সহকারী শিক্ষকগন একই গ্রেডে বেতন পেতেন। প্রধান শিক্ষকগন ১০/- টাকা বেশী পেতেন। এরপর প্রধান ও সহকারী শিক্ষকদের এক ধাপ বেতন ব্যবধান করেন। এরপর ২০০৬ সালে বেতন বৃদ্ধি করার সময় প্রধান সহকারীদের দুই ধাপ বেতন ব্যবধান করা হয়। তখন থেকে বিভিন্ন সময়ে সহকারী শিক্ষকগন তাদের বেতন এক ধাপ ব্যবধানের দাবী জানিয়ে আসছেন। এরপর ২০১৪ সালে বেতন বৃদ্ধি করার সময় সহকারী শিক্ষকদের আরও একধাপ পিছনে ফেলে তিন ধাপ বেতনের ব্যবধান করা হয়।

তখন থেকে সহকারী শিক্ষকগন পৃথক ভাবে সংগঠিত হয়ে তাদের বেতন প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকদের নীচের ধাপে নির্ধারন করার জন্য জোর দাবী জানীয়ে বিভিন্ন সময়ে উপজেলা শিক্ষা অফিসার থেকে মহা পরিচালক পর্ষন্ত, উপজেলা নির্বাহী অফিসার থেকে সচিব পর্যন্ত ও স্থানীয় এমপি থেকে প্রধানমন্ত্রী পর্যন্ত স্মারক লিপি, পোষ্ট কার্ডে দাবী সম্বলিত চিঠি প্রদানসহ বিভিন্ন সভা সমবেশ করে আসছেন।


দপ্তরের বিভিন্ন উচ্চ পর্যায় থেকে বৈষম্য কমানোর আশ্বাস প্রদান করা হলেও দীর্ঘ চার বছরে বৈষম্য না কমিয়ে তাদেরকে চরম হতাশার মাঝে ফেলে রাখায় তাদের দাবী আদায়ের জন্য সহকারী শিক্ষকদের সব সংগঠন এক হয়ে মহা জোট গঠন করে অাজ ভোর থেকে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে অবস্থান নেয়। দাবী আদায় না হওয়া পর্যন্ত তারা আমরন অনশন চালিয়ে যাবেন বলে জানা যায়।

একই ধরনের আরও সংবাদ