অধিকার ও সত্যের পক্ষে

ইয়েমেনে এক কোটি শিশুর মানবিক সহায়তা প্রয়োজন’

এএফপি ও আল-জাজিরা

ইয়েমেনের এক কোটিরও বেশি শিশুর মানবিক সহায়তা প্রয়োজন বলে জানিয়েছে ইউনিসেফ। এ দিকে টানা তিন সপ্তাহের সৌদি অবরোধের পর গতকাল সোমবার ইয়েমেনে ২৫ হাজার টন খাদ্য সহায়তা পৌঁছেছে। তবে দুর্ভিক্ষের ঝুঁকির মুখে থাকা দেশটির প্রয়োজনের তুলনায় এটি খুবই অপ্রতুল।

জর্ডানের রাজধানী আম্মানে ইউনিসেফের মধ্যপ্রাচ্য ও উত্তর আফ্রিকা বিষয়ক স্থানীয় পরিচালক গির্ট ক্যাপেলার  সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ইয়েমেনের এক কোটি ১০ লাখ শিশুর মানবিক সহায়তা প্রয়োজন, যা মোট জনসংখ্যার ৪০ শতাংশ। ক্যাপেলার বলেন, ‘ইয়েমেনে গত আড়াই বছরে অন্তত পাঁচ হাজার শিশু প্রাণ হারিয়েছে বা আহত হয়েছে। হাজার হাজার স্কুল ও হাসপাতাল ধ্বংস হয়েছে। ভয়াবহ অপুষ্টিতে রয়েছে অন্তত ২০ লাখ শিশু।’

এ দিকে প্রায় তিন সপ্তাহ পর ইয়েমেনে জাতিসংঘের ত্রাণ পৌঁছেছে। জাহাজে করে ইয়েমেনে পৌঁছানো ত্রাণের মধ্যে ২৫ হাজার টন গম রয়েছে। সৌদি আরবের অবরোধের কারণে প্রায় ২০ দিন ইয়েমেনে কোনো ত্রাণ পৌঁছানো সম্ভব হয়নি।  জাতিসংঘের কর্মকর্তারা সতর্কবার্তা দিয়েছেন, যদি অবরোধ পুরোপুরি উঠিয়ে না নেওয়া হয়, তা হলে দেশটি গত কয়েক দশকের মধ্যে সবচেয়ে বড় দুর্ভিক্ষের মুখে পড়বে।

২০১৫ সালে হুতি বিদ্রোহীরা ইয়েমেনের রাজধানী সানা দখল করে নিলে দেশটিতে গৃহযুদ্ধ তীব্র আকার ধারণ করে। এরপর নির্বাসিত ইয়েমেনি প্রেসিডেন্ট আব্দ-রাব্বু মানসৌর হাদির সমর্থনে সেখানে বিমান হামলা শুরু করে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট। এই মাসের প্রথম দিকে হুতি বিদ্রোহীরা রিয়াদ বিমানবন্দর লক্ষ্য করে ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করলে, জল, স্থল ও আকাশপথে ইয়েমেনের ওপর অবরোধ আরোপ করে সৌুৃদি কর্তৃপক্ষ।

একই ধরনের আরও সংবাদ